আজ বিশ্ব বাঘ দিবস

আমাদের ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৯ জুলাই ২০১৭ ১৯:০৫

আজ বিশ্ব বাঘ দিবস

আজ শনিবার (২৯ জুলাই) পালিত হচ্ছে বিশ্ব বাঘ দিবস। পৃথিবীতে বাঘ রয়েছে এমন ১৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। কিন্তু সুন্দরবনের বাঘ রক্ষায় যথাযথ পরিকল্পনা ও উদ্যোগ না থাকায় আশঙ্কাজনকভাবে কমছে রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সংখ্যা।

১০ থেকে ১৫ বর্গকিলোমিটার এলাকা একজোড়া বাঘের জন্য যথেষ্ট হলেও প্রতি ৫০ বর্গকিলোমিটারে এখন বাঘ আছে মাত্র একটি করে। সংকট কাটিয়ে উঠতে বনের প্রায় ৫০ ভাগ এলাকাকে অভয়ারণ্য ঘোষণা করেছে বন বিভাগ।

সুন্দরবনে খাবারের অনুপাতে একজোড়া বাঘের বিচরণের জন্য দরকার ১০ থেকে ১৫ বর্গকিলোমিটার এলাকা। তবে এই বনে এখন ৫০ বর্গকিলোমিটারে আছে মাত্র একটি করে রয়েল বেঙ্গল টাইগার।

সরকারিভাবে দাবি করা হচ্ছে, সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশে বাঘ আছে ১০৬টি আর ভারতীয় অংশে ৭৬টি। সব মিলিয়ে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ১৮২। তবে ক্যামেরা ট্রাপিংয়ের মাধ্যমে গণনার ওই পদ্ধতি নিয়ে নানা কথাবার্তা ওঠায় আবারও নতুন করে গোনা হচ্ছে। এবারকার গণনায় প্রাণীটির সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত বিশ্ব বাঘ সম্মেলনে বাংলাদেশ, ভারতসহ ১৩টি বাঘসমৃদ্ধ দেশের সরকারপ্রধানদের ঘোষণা ছিল, ২০২২ সাল নাগাদ নিজ নিজ দেশে এ প্রাণীটির সংখ্যা দ্বিগুণ করার। এর পর কেটে গেছে সাত বছর। এ সময়ে ভারতে প্রাণীটির সংখ্যা বাড়লেও বাংলাদেশে উল্টো চিত্র।

এ বাস্তবতায় আজ শনিবার বাঘ দিবস পালিত হচ্ছে বিশ্বজুড়ে। সুন্দরবন বন বিভাগও আলোচনাসভা, সমাবেশসহ নানা কর্মসূচি নিয়েছে। বন বিভাগের আয়োজনে প্রথমবারের মতো বাঘ দিবসের অনুষ্ঠান হচ্ছে এবার বাগেরহাটে। এ দিবসের প্রতিপাদ্য, ‘বাঘ আমাদের গর্ব, বাঘ রক্ষা করবো’।

বিশেষজ্ঞদের মতে, বর্তমান সংখ্যাকে দেড়শ থেকে দুইশ পর্যন্ত বৃদ্ধি না করতে পারলে, ভবিষ্যতে সুন্দরবন থেকে বাঘ বিলুপ্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তাই সুন্দরবনে বাঘের অবাধ বিচরণ ও যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব বাধা চিহ্নিত করে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন বনবিভাগ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুন...