রোহিঙ্গা বিষয়টি আমাদের ওপর চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

news-details
জাতীয়

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।।  

পরিকল্পনামন্ত্রী মোহাম্মদ আবদুল মান্নান বলেছেন, রোহিঙ্গাদের বিষয়টি মানবিক, তাদের জীবনধারণের সহযোগিতার পাশাপাশি নিজভূমিতে নিরাপদে ফেরত দিতে মিয়ানমার সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে যাচ্ছি। এ নিয়ে প্রতিবেশী দেশগুলোসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গেও আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের নীতি অনুযায়ী, প্রতিবেশীদের আমরা আলোচনার পথ বেছে নিই, বিবাদ পছন্দ করি না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে 'মিয়ানমার নাগরিকদের জোরপূর্বক বাংলাদেশে স্থানান্তরিত করণ' শীর্ষক দিনব্যাপী ওয়ার্কশপের উদ্বোধনী সেশনে তিনি এ কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানের শুরুতে ইন্টারন্যাশনাল ফুড পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (আইএফপিআরআই) ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ (বিআইডিএস) এর যৌথ উদ্যোগে একটি গবেষণা রিপোর্ট তুলে ধরেন। 

এতে উঠে এসেছে, ২০১৭ সালের আগস্ট থেকে অক্টোবরের মধ্যে ৬ লাখ ৭১ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের থাকা ও পর্যাপ্ত খাবার দেওয়া হচ্ছে। তবে শিশুদের খাদ্য সরবরাহ বাড়ানো দরকার বলে মনে করা হয়।

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, রোহিঙ্গা বিষয়টি আমাদের ওপর চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। এটা মানবিক বিষয়। সেজন্য আমাদের সরকার প্রতিবেশীদের সঙ্গে আলোচবার পথ বেছে নিই, বিবাদ পছন্দ করি না। 

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের বসবাস, খাদ্য সরবরাহ এটা বিশাল বাজেটের চাপ, তারপরও আমরা মেনে নিয়েছি। তাদের যতটুকু সম্ভব ভালো রাখার চেষ্টা করছি। তবে বাচ্চাদের খাবার নিয়ে রিপোর্টে ল্যাকিংসের কথা বলা হয়েছে। এটা কোনোমতেই গ্রহণযোগ্য নয়। তারপরও আমরা দেখবো। আমাদের ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নোট দেবো।

দিনব্যাপী এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিআইডিএস এর মহাপরিচালক ড. কেএএস মুরশিদ,  ইউএনডব্লিউএফপির কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ রিচার্ড রাগান,  গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গবেষক টিমের সদস্য ড. পাল দরশ (dr paul Dorosh), ড. বিনায়ক সেন ও ড. মুহাম্মদ ইউনুসসহ সরকারি ও বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিগণ। 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।