জেএসএস নেতাকে না পেয়ে তার বাবাকে গুলি করে হত্যা

news-details
দেশজুড়ে

।। বান্দরবান প্রতিনিধি ।।

মাত্র একদিনের ব্যবধানে বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে আরও একজন জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সমর্থক নিহত হয়েছে। নিহত জয়মনি তঞ্চঙ্গ্যার (৫২) ছেলে রিপন তঞ্চঙ্গ্যা (২৮) জেএসএস-এর স্থানীয় নেতা। সন্ত্রাসীরা ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে গুলি করে হত্যার করেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। নিহত জয়মনি কাঠের ব্যবসা করতেন।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে সদর উপজেলা কুহালং ইউনিয়নের বাকীছড়ার ৩ নং রাবার বাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শুক্রবার পর্যন্ত এ ঘটনায় পরিবারের সদস্যরা থানায় মামলা করেনি।  

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ৬-৮ জন অন্ত্রধারী ৩ নং রাবার বাগান এলাকার তঞ্চঙ্গ্যা পাড়ায় প্রবেশ করে। মুখোশ পরা অস্ত্রধারীদের তিনজন ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে জেএসএসের স্থানীয় নেতা রিপন তঞ্চঙ্গ্যাকে খোঁজ করছিল। তাকে ঘরে না পেয়ে তার বাবা জয়মনি তঞ্চঙ্গ্যাকে বাইরে নিয়ে আসে। এরপর কোনো কথা ছাড়াই তাকে গুলি করে হত্যা করে অস্ত্রধারীরা। ঘটনার কিছুক্ষণ পর পুলিশ ও সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

কুহালং ইউপি চেয়ারম্যান সানুপ্রু মারমা বলেন, সন্ত্রাসীরা জয়মনির ছেলেকে খোঁজ করে না পেয়ে তাকে হত্যা করেছে বলে শুনেছি। 

সদর থানা ওসি শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, বৃহস্পতিবার রাতেই ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা যায়নি। কারা জড়িত তাও জানা যায়নি। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কেউ মামলা করতে আসেনি।

এ খুনের ঘটনায় স্থানীয়রা, পরিবারের সদস্য ও জেএসএস নেতারা দায়ী করেছে মগ পার্টিকে। এই মগ পার্টি মিয়ানমারের দলছুট বিদ্রোহী গ্রুপ আরাকান লিবারেশন পার্টির (এএলপি) সদস্য ও স্থানীয় মারমাদের নিয়ে গঠিত।  

এর আগে মঙ্গলবার রাতে একই উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নে একদল সন্ত্রাসী তাইংখালী বাজারে জেএসএসের কর্মী বিনয় তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করে। ওই একই সময় একই ইউনিয়নের জেএসএসের আরেক কর্মী পুরাধন তঞ্চঙ্গ্যাকে অপরহণ করে নিয়ে যায় তারা। 


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।