ব্রেকিং নিউজ

পল্লী বিদ্যুতেই চাকরি পেলো দুই হাত হারানো সিয়াম

news-details
দেশজুড়ে

।। শরীয়তপুর প্রতিনিধি ।। 

 শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ছিঁড়ে পড়া তাড়ে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দুই হাত হারানো সেই কলেজছাত্র সিয়াম খানকে চাকরি দিয়েছে শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।

গত ৫ মে থেকে সিয়াম খানকে শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয়ে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগপত্র দেওয়া হয়। নিয়োগপত্র পেয়ে ৬ মে থেকে দায়িত্ব পালন শুরু করেছে সিয়াম। 

শরীয়তপুর পল্লি বিদ্যুৎ সমিতি ও সিয়ামের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার বিঝারী ইউনিয়নের উপসী গ্রামের দরিদ্র জাহাজ শ্রমিক ফারুক খানের ছেলে সিয়াম খান (১৯)। সে নড়িয়া সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র থাকা অবস্থায় গত ২০১৭ সালের ৫ এপ্রিল উপসী গ্রামে ঝড়ে ছিঁড়ে পড়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বৈদ্যুতিক তাড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হয় সিয়াম। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিয়ামের দু’টি হাত কব্জি থেকে কেটে ফেলতে হয়। দুর্ঘটনায় হাত হারিয়েও সিয়াম তার লেখাপড়া চালিয়ে গেছে। ২০১৮ সালে সিয়াম অন্যের সাহায্য নিয়ে নড়িয়া সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে জিপিএ ৪.০৮ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।

সে সময় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গাফিলতির কারণে দুই হাত হারানো সিয়ামের ক্ষতিপূরণ দাবি করে হাইকোর্টে রিট করা হয়। হাইকোর্ট সিয়ামকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ডকে নির্দেশ দেয়। এই রায়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ড আপিল করে। বর্তমানে ওই মামলাটি আপিল বিভাগে চলমান রয়েছে।

এদিকে পঙ্গুত্ব বরণকারী সিয়াম খানকে মানবিক দিক ও তার ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুযায়ী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে একটি চাকরি দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়। সিয়াম খান পল্লী বিদ্যুতের ওই প্রস্তাব গ্রহণ করে গত ৩০ এপ্রিল বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর একটি চাকরির জন্য আবেদন করেন। সিয়ামের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২ মে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ডের ৬০৫তম সভায় মানবিক দিক বিবেচনা করে সিয়াম খানকে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে অফিস সহায়ক পদে চাকরি দেওয়ার প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়।

সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ৮ মে’র মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে পরিদপ্তরকে অবহিত করতে শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজারকে অনুরোধ করা হয়। সিদ্ধান্ত মোতাবেক শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার সিয়াম খানকে অফিস সহায়ক পদে গত ৫ মে নিয়োগপত্র দেন। নিয়োগপত্র পাওয়ার পরের দিন ৬ মে থেকে সিয়াম শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে অফিস সহায়ক পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

সোমবার (১৩ মে) শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয়ে গিয়ে সিয়াম খানকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়। অফিসের অন্যান্য লোকজন সিয়াম কাজে আন্তরিকতার সঙ্গে সযোগিতা করছে। সিয়ামও ঠিকঠাক মতো তার দায়িত্ব পালন করতে পারছেন। 

সিয়াম বলেন, দু’টি হাত হারিয়ে আমি অসহায় হয়ে পড়েছিলাম। তখন আমি ভেবেছিলাম আমার জীবন শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু পরবর্তীতে আমি হাল ছাড়িনি। আমি লেখাপড়া চালিয়ে গেছি। অন্যের সহযোগিতায় এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে কৃতকার্য হয়েছি। বর্তমানে আমি নড়িয়া সরকারি কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স-এ অধ্যায়নরত আছি। আমি একজন গরীব পরিবারের সন্তান। তাই আমাকে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে চাকরি দেওয়ার প্রস্তাব করা হলে আমি চাকরিটি সাদরে গ্রহণ করি। যেই পল্লী বিদ্যুতের তাড়ে আমার হাত হারিয়েছি সেই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিই আমার চাকরির ব্যবস্থা করেছে। এই চাকরির ফলে আমার জীবনের নিরাপত্তা অনুভব করছি। এতে আমি এবং আমার পরিবার খুবই খুশি। চাকরি দেওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিকে।

শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মো. সোহরাব আলী বিশ্বাস বলেন, দুই হাত হারানো অসহায় সিয়ামের জন্য একটি চাকরির ব্যবস্থা করতে পেরে আমরাও খুশি। সিয়াম দরিদ্র পরিবারের সন্তান এবং সে একজন ভালো ও ভদ্র ছেলে। দুই হাত হারিয়েও সিয়াম অফিসের দায়িত্ব ঠিকঠাক মতো পালন করতে পারছে। অফিসের সবাই সিয়ামকে কাজে সহযোগিতা করছে। অফিসের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সিয়াম তার লেখাপড়াও চালিয়ে যেতে পারবে।   

তিনি আরও বলেন, সমিতির বেতন কাঠামো অনুযায়ী সিয়ামের মূল বেতন ধরা হয়েছে ১৫,৫০০ টাকা। এর সঙ্গে যোগ হবে বেতনের ৪০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া, ১ হাজার টাকা চিকিৎসা ভাতা, বিদ্যুৎ ভাতা ৬২৪ টাকা ও  ধোলাই ভাতা ৩০০ টাকা। এছাড়া বছরে দু’টি বোনাস ও বৈশাখী উৎসব ভাতা দেওয়া হবে তাকে। ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত চাকরি শেষে এককালীন সিয়াম পাবে ৪০ লাখ টাকার ওপরে।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।