প্রতিপক্ষের সঙ্গে খারাপ আচরণ করবেন না: কাদের

news-details
রাজনীতি

।। নোয়াখালী প্রতিনিধি ।।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারা বাংলাদেশে যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছিল, সেটার সোনালী ফসল এই বিপুল বিজয়। সেই বিজয়ে উল্লাসিত, উচ্ছ্বাসিত না হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, আমাদের নেত্রী বিজয় উৎসব মিছিল না করার নির্দেশ দিয়েছেন। আমি আশা করি, আমাদের কর্মীরা সংযত হয়ে বিজয়ের আনন্দ ঘরোয়াভাবে উদযাপন করবেন। কোন বাড়াবাড়ি করবেন না এবং আমাদের প্রতিপক্ষের নেতাকর্মীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করবেন না। 

সোমবার সকাল ১১টার দিকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার দলীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত বিজয়োত্তর পথসভায় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন তিনি। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের এই এলাকার একটা ঐতিহ্য আছে। বাকবিতণ্ডা এটা মাঠে থাকবে, কারো ঘরে গিয়ে হামলা ও ভাংচুর করবেন না। আমি বিদ্বেষ ও প্রতিহিংসা পছন্দ করি না। রাজনীতিতে জোয়ার-ভাটা আছে। কখনও জোয়ার আসবে, তেমনি ভাটাও আসবে।

তিনি আরও বলেন, সারা দেশে কিছু কিছু সহিংস ঘটনা ঘটেছে, কিন্তু আমাদের  এলাকায় কিছুই হয়নি। সেজন্য আমি আমার নেতাকর্মী ও জনগণকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সবাইকে আমি ধৈর্য ধরতে বলছি, রাতারাতি সব কিছু সমাধান করা সম্ভব না, সময় লাগবে। মুছাপুরের ক্লোজারের মত কঠিন কাজ করেছি, বিদ্যুৎ দিয়েছি, আজকে যেখানেই যান মাকড়াসার জালের মত পাকা রাস্তা ছড়িয়ে পড়েছে। এখানে এখন দরকার গ্যাস ও তরুণ বেকারদের জন্য কর্মসংস্থান। আমি আজ থেকে পর্যায়ক্রমে সমাধানের চেষ্টা করব, আজ থেকে মনোযোগী হবো। 

কাদের বলেন, আমি শুধু আপনাদেরকে বলব প্রতিপক্ষের ওপর রাজনৈতিক প্রতিহিংসা পরায়ন হবেন না। যেটা আমরা অতীতেও করিনি। ২০০১ সালে অনেক বেদনা আছে, ১৪ সালেও আছে। সে সময় বছরের পর বছর আমার নেতাকর্মীরা বাবা মায়ের জানাযা ও ঈদের নামায পর্যন্ত পড়তে পারেনি। আমি সে ঘটনার পুনরাবৃত্তি করব না এবং প্রতিহিংসা পরায়ণ হবো না। আমি কোন প্রকার প্রতিশোধ নেওয়ার পক্ষপাতিত্ব নয়। শুধু আমার এলাকায় নয়, সারা দেশের নেতাকর্মীদেরকে আমার এই নির্দেশ পালনের আহ্বান জানাচ্ছি। 

আওয়ামী লীগের এই নেতা আরও বলেন, আমার নেত্রীর কণ্ঠে কণ্ঠ মিলিয়ে বলতে চাই যে, আমরা অতীতে যে ভুল করেছি সেই ভুল সংশোধন করব। ভুল সংশোধন করার সৎ সাহস শেখ হাসিনার আছে। পার্টির যে শিক্ষা, বঙ্গবন্ধুর যে শিক্ষা, শেখ হাসিনার যে শিক্ষা সেই শিক্ষা থেকে আমরা শিক্ষা নেব। নবতর পথযাত্রার সূচনা করব। বাংলাদেশের জনগণের কাছে উন্নয়ন নিয়ে, আচরণ নিয়ে আমরা ঐতিহ্যবাহী দল হিসেবে সম্মান ও মর্যাদাকে সু-প্রতিষ্ঠিত করব। আমরা সু-শাসনকে দৃঢ় ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত করবার অঙ্গিকার করছি। আমাদের পরবর্তী জেনারেশনের জন্য শেখ হাসিনার কর্মসূচি বাস্তবায়ন করব এবং দেশের বেকার তরুণদের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেব। নতুন বছরে এই ম্যাসেজটা আমাদের নেত্রীর পক্ষ থেকে আমি আপনাদের দিয়ে যাচ্ছি। 

এ সময় বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা, সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহাব উদ্দিন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান বাদল, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান, সাদারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

If you want to comment please Login. If you are not registered then please Register First