কেরালায় আইএস জঙ্গিদের হামলার আশঙ্কা, সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি

news-details
আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লক্ষদ্বীপ ও তার আশপাশের এলাকায় পর পর ভয়াবহ বিস্ফোরণের পরিকল্পনা করেছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জঙ্গিরা। সেই লক্ষ্যে আইএসের ১৫ সদস্য একটি সাদা নৌকায় চেপে শ্রীলঙ্কা থেকে লক্ষদ্বীপে আসার জন্য রওনা হয়েছে বলে ভারতীয় গোয়েন্দাদের কাছে খবর এসেছে। 

শ্রীলংকার রাজধানী কলম্বো থেকে এই সরকারি বার্তা পৌঁছানোর পরে নড়েচড়ে বসেছে কেরালার রাজ্য সরকার। রাজ্যটির উপকূলে সবোর্চ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। খবর এনডিটিভির।

যে কোনো মুহূর্তে আইএস জঙ্গিদের ওই নৌকা কেরালার উপকূলে এসে পড়তে পারে, এই খবর পেয়ে মাছ ধরার সব নৌকা ও জাহাজের উপর কড়া নজরদারি শুরু হয়ে গেছে। মৎস্যজীবী ও জাহাজগুলিকেও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

কেরালার উপকূল পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, কলম্বো থেকে ওই গোপন বার্তা এসে পৌঁছেছে গত ২৩ মে। লোকসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার দিন। তাতে স্পষ্টই জানানো হয়েছে, ওই সাদা নৌকাটিতে রয়েছে আইএসের ১৫ জঙ্গি।

উপকূল পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গত এপ্রিলে শ্রীলঙ্কায় একের পর জঙ্গি হামলার পর থেকেই এমন একটা কিছু ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছিল। গত ২৩ মে কলম্বোর পাঠানো গোপন বার্তায় সেই আশঙ্কা আরও জোরদার হয়েছে।

কেরালার উপকূল পুলিশ ও গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, এমন বার্তা মাঝেমধ্যেই আসে উপকূল পুলিশের কাছে। কিন্তু এবার যেভাবে জঙ্গিদের সংখ্যা নির্দিষ্ট করে বলে দেওয়া হয়েছে, তাতে কলম্বোর ওই বার্তাটিকে যথেষ্টই গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। সঠিক তথ্য হাতে না থাকলে এভাবে জঙ্গিদের সংখ্যা বলা সম্ভব নয়।

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের পর জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার (এনআইএ) গোয়েন্দারা জানান,  আইএসই ওই ঘটনায় জড়িত। তখন থেকেই কেরালার উপকূলে নজরদারি জোরদার করা শুরু হয়। 

কারণ, গোয়েন্দাদের কাছে খবর রয়েছে, ইরাক ও সিরিয়ায় আইএসের শক্তি প্রায় শেষ হয়ে যাওয়ার পর কেরালায় ওই সন্ত্রাসবাদী সংগঠনটি শক্ত ভিত গড়ে ফেলেছে। কেরালার যুব সম্প্রদায়ের একটি অংশ সরাসরি বা পরোক্ষভাবে জড়িয়ে পড়ছে আইএসের সঙ্গে বা তারা কোনও না কোনও ভাবে আর্থিক মদদ জুগিয়ে যাচ্ছে আইএসকে। 

গত এপ্রিলে শ্রীলঙ্কায় একের পর এক বিস্ফোরণে ২৫০ জনের মৃত্যু হয়। এই হামলার দায় স্বীকার করে আইএস।

গোয়েন্দাদের সন্দেহ আরো বাড়ে। কারণ, মে মাসের গোড়ার দিকে প্রথমবার আইএসের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়, ভারতের একটি রাজ্যে তারা শক্ত ঘাঁটি গেড়েছে। গত শুক্রবার সেই রাজ্যের নামও জানিয়েছে আইএসের মুখপাত্র সংবাদ সংস্থা ‘আমাক নিউজ এজেন্সি’। সেই নামটি হলো, ‘ভিলাইয়া অফ হিন্দ’। সূত্র-আনন্দবাজার পত্রিকা।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।