ছাত্রলীগের কমিটিতে ১৯ জনের পদ শূন্য হচ্ছে

news-details
রাজনীতি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ১৯ জন বিতর্কিত নেতার নাম পাওয়া গেছে। এই ১৯ জনের পদ শূন্য ঘোষণা করা হবে। এছাড়া রাতে সংগঠনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা কমিটি এবং বুধবার বা বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটিও ঘোষণা করা হবে। 

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী এসব তথ্য জানান।

গোলাম রাব্বানী বলেন, সংবাদ সম্মেলনে নাম প্রকাশিত বিতর্কিত ১৬ জনের মধ্যে আটজন নিজেদের নির্দোষ উল্লেখ করে দালিলিক তথ্য-প্রমাণ দিয়েছেন। তাদের বাইরেও কয়েকজনের ব্যাপারে আপত্তি ছিলো। সব মিলিয়ে প্রাথমিকভাবে ১৯ জনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ। তাই প্রাথমিকভাবে ওই ১৯ জনের পদ শূন্য ঘোষণা করা হবে। তবে তাদের ব্যাপারে অধিকতর তদন্তের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, সেটি পরে দেখা হবে। 

২৪ ঘণ্টা সময় নিয়ে বিতর্কিতদের বহিষ্কারে এত সময় লাগার কারণ হিসেবে গোলাম রাব্বানী বলেন, এই কয়েকদিন দিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সাহায্য নিয়ে কাজ করা হয়েছে, যাদের সম্পর্কে সন্দেহ হয়েছে যাচাই করে দেখা হয়েছে। সবমিলিয়ে ১৯ জনের নাম পাওয়া গেছে। পদবঞ্চিতরা যে কমিটিকে বিতর্কিত বলছেন, সেটি তাদের ‘পলিটিক্যাল স্ট্যান্ড’ হতে পারে। তবে এসব বিষয়ে যাচাই করা দরকার।

ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণার পর একে ‘বিতর্কিত’ উল্লেখ করে প্রতিবাদ জানান পদবঞ্চিতরা। ওইদিনই বিক্ষোভ করে তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন ডাকেন তারা। তবে দুই পক্ষের মারামারিতে সংবাদ সম্মেলন হয়নি। এরপর গত ১৫ মে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিতর্কিতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। পরে ওই দিনই মধ্যরাতে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিতর্কিতদের বহিষ্কারে ২৪ ঘণ্টা সময় নেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। সেখানে চিহ্নিত ১৭ জনের মধ্যে বিতর্কিত ১৬ জনের নামও প্রকাশ করেন তারা।

রাতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটি: মঙ্গলবার রাতে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববদ্যালয় শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। এছাড়া বুধ বা বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান তিনি।

কেন্দ্রীয় কমিটির সঙ্গে গত বছরের ৩১ জুলাই সনজিত চন্দ্র দাসকে সভাপতি ও সাদ্দাম হোসাইনকে সাধারণ সম্পাদক করে সংগঠনটির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। সংগঠনের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা কমিটির মেয়াদ এক বছর। সেই হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ রয়েছে আর দুই মাস।

পদবঞ্চিতদের অবস্থান কর্মসূচি অব্যাহত: এদিকে বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে কমিটি পুনর্গঠনের দাবিতে পদবঞ্চিতদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা সেখানেই অবস্থানের ঘোষণা দিয়েছেন। গত রোববার দিবাগত রাত দেড়টা থেকে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নিয়েছিলেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবারও সেখানে অবস্থান করছিলেন তারা।

পদবঞ্চিত অংশের নেতৃত্বে থাকা সংগঠনটির গত কমিটির কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক রাকিব হোসেন বলেন, প্রধামন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী এতদিনে বিতর্কিতদের বহিষ্কার করার কথা ছিলো। আর এর সঙ্গে ত্যাগী কর্মীদের সেসব স্থানে পদায়ন করারও কথা ছিলো। কিন্তু এখন পর্যন্ত তা করা হয়নি। এসময় বিতর্কিতদের বহিষ্কার করে শূন্য পদে ত্যাগীদের পদায়ন না করা পর্যন্ত তারা সেখানেই অবস্থান করবেন বলে জানান।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।