পৃথিবীর কোনো দেশ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেনি: সিইসি

news-details
জাতীয়

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পৃথিবীর কোনো দেশ প্রত্যাখ্যান করেনি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সফলভাবে সম্পন্ন করায় ইসির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানাতে বর্ণাঢ্য এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ইসি সচিবালয়।

এতে নির্বাচন ভবনে পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে সিইসি ও অন্য কমিশনার, ইসি সচিবালয়, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ ও ইসির কর্মকর্তা-কর্মচারিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সিইসি বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচন জাতির জন্য বিরাট বড় একটি অনুষ্ঠান। আমরা আগে থেকেই বার বার বলেছি এই নির্বচনটা শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, বিশ্বের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা দেখেছেন নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার পরপরই বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থেকে বিভিন্ন কমিউনিটি থেকে কমেন্ট করেছে। তারা অভিমত ব্যক্ত করেছে।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, তারা এই নির্বাচনকে সফল হিসেবে উল্লেখ করেছেন। কেউ প্রত্যাখ্যান করেননি। সেই রাশিয়া থেকে শুরু করে বলগা নদীর পাড় দিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরের আমেরিকা ইউরোপ সর্বত্র এই নির্বাচনের বার্তা পৌঁছে দিয়েছি, সেখান থেকে আমরা শীতের হাওয়ায় ইথারে ইথারে ফিডব্যাক চলে এসেছে।

তিনি বলেন, পৃথিবীর কোন দেশ বা সংস্থা এই নির্বাচন নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া করেছে? নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে কোনো কথা বলেছে? কারণ এটা আমাদের বিজয়। আপনাদের (কর্মকর্তা-কর্মচারিদের) সকলের সাফল্য ও সার্থকতা। প্রত্যেকেই প্রত্যেকের কর্তব্য পালন করেছেন।

বক্তব্যে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের প্রশংসা করে বলেন, নির্বাচন কমিশনের সুযোগ্য সচিব, দক্ষ সচিব, সিক্ত সচিব। যার নেতৃত্বেই নির্বাচন কর্মযজ্ঞ সম্পন্ন হয়েছে।

জাতীয় নির্বাচনের সফলতার কথা তুলে ধরে সিইসি বলেন, নানা গুরুত্বের আঙ্গিকে বাংলাদেশের নির্বাচন ভিন্ন, গুরুত্বপূর্ণ এবং বিশাল। পৃথিবীর সব দেশে নির্বাচন একদিনে হয় না। এদেশে ১০ কোটি ৪১ লোকের ভোট একদিনে নিতে হবে। একদিনে পুরো নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করতে হবে। কাছাকাছি কোনো দেশে এই পরিস্থিতি নেই।

তিনি বলেন, এই কারণেই নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ ও কঠিন। আর সেই কঠিন পথ পাড়ি নিয়ে আমরা নির্বাচনের সাফল্য হাতে নিয়ে এসেছি। এখন আমাদের পরিশ্রমের ফল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের কাছে, যারা দেশ পরিচালনা করবেন। আমরা পরিশ্রমের ফসল তাদের হাতে তুলে দিলাম, তাদের দায়িত্ব হবে দেশকে সেইভাবে পরিচালনা করা। দেশকে কতটা এগিয়ে নিতে পারে সেটা।

ইভিএম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ইভিএম নিয়ে কাজ করতে গেলে ভুলভ্রান্তি হবে। কাজ করতে গিয়ে সবকিছু সঠিকভাবে আনা সম্ভব হবে না। তবুও এই ইভিএম আমরা সার্থকভাবে ব্যবহার করতে পারলে এটি একদিন আমাদের দক্ষ লোকদের বিদেশ থেকে ডাক আসবে।


 

You can share this post on
Facebook

0 Comments

If you want to comment please Login. If you are not registered then please Register First