ব্রেকিং নিউজ

সিরাজগঞ্জ ও সুনামগঞ্জে বাস-লেগুনার সংঘর্ষ, নিহত ১৫

news-details
দেশজুড়ে

সিরাজগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জ ও সুনামগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় ১৫ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে লেগুনার সংঘর্ষে নিহত হয়েছে আটজন। অপরদিকে, সুনামগঞ্জের পাথারিয়া ইউনিয়নেও বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে ৭ জন নিহত হয়। পৃথক এই সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে ২২ জন।

উল্লাপাড়া সংবাদদাতা জানান, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার বোয়ালিয়া বাজার এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে কমপক্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো সাতজন। আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, হতাহতরা সবাই লেগুনার যাত্রী। দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই আটজন নিহত হন।

ধারণা করা হচ্ছে, হতাহতরা সবাই ধানকাটা শ্রমিক। তাদের বিস্তারিত নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধির জানান,  সুনামগঞ্জ-দিরাই সড়কের গণিগঞ্জে বাস-লেগুনার মুখোমুখী সংঘর্ষের ঘটনায় ৭ লেগুনাযাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত এবং ১৫ জন আহত হয়। হতাহতদের সকলেই লেগুনাযাত্রী। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের গণিগঞ্জ এলাকায় দুই পরিবহনের মুখোমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় দু’টি পরিবহনই সড়ক থেকে ছিটকে খাদে পড়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লেগুনায় ১০-১১ জন যাত্রী ছিলেন। বাসে যাত্রী দেখা যায়নি। মুখোমুখী সংঘর্ষের ঘটনায় লেগুনাটি দুমড়েমুচড়ে যায়। লেগুনার চালকসহ ৭ জন ঘটনাস্থলেই মারা যান। এদের মধ্যে ৫ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

তারা হলেন- দক্ষিণ সুনামগঞ্জের দুর্বকান্দার আফজাল হোসেন (১৬), মিলন মিয়া (১৫), সাগর মিয়া (১৬), লেগুনা চালক নোমান (২৪), শাল্লা উপজেলার নিয়ামতপুর গ্রামের নিমেশ চন্দ্র দাস (২২)। নিহত আরেকজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিত্সক রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় আহত ১৫ জন সদর হাসপাতালে এসেছিলেন। এদের ৫ জনকে গুরুতর অবস্থায় সিলেট পাঠানো হয়েছে।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার  এস আই মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম জানান, এ পর্যন্ত ৫ জনের পরিচয় মিলেছে। অন্যদের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।

সুনামগঞ্জ সদরের ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা নিউটন দাস তালুকদার জানান, সকালে এসে তারা নিহতদের লাশ উদ্ধারের পাশাপাশি আহত কয়েকজনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। এর মধ্যে ২-৩ জনের অবস্থা গুরুতর।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।