লোক দেখানো কাজ করছি না: মেয়র আতিক

news-details
জাতীয়

আমাদের প্রতিবেদক 

সড়ক ব্যবস্থা ঠিক করার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ফুটব্রিজ নির্মাণকে লোক দেখানো কর্মকাণ্ড হিসেবে দেখতে নারাজ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বাসচাপায় নিহত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আবরার চৌধুরী স্মরণে রাজধানীর বসন্ধুরা আবাসিক এলাকার গেইটে ফুটব্রিজ নির্মাণকাজ পরিদর্শনে আসেন মেয়র। সেখানেই সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

গত ১৯ মার্চ বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রধান গেইটের সামনে বাসচাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের শিক্ষার্থী আবরার চৌধুরী নিহত হন। এরপর সড়ক ব্যবস্থাপনা নিয়ে নড়েচড়ে বসে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায়ে আবরার স্মৃতি স্মরণে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ কাজ শুরু করে।

ডিআইটি রোড, প্রগতি সরণিকে ‘মডেল রোড’ হিসেবে গড়ে তোলার কথাও এর আগে বলেছেন মেয়র আতিক।

সোমবার তিনি বলেন, উত্তরের সড়কে আর কোথাও ফুটব্রিজ নির্মাণ করা হবে কিনা, তা সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলীরা বুয়েটের সঙ্গে ফিজিব্যাল স্টাডি করে ঠিক করবেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, “আমরা কি এসব জনগণকে দেখানোর জন্য করছি? তা নয়। আমরা রিয়েল করছি এসব। সময় মতো যদি করতে না পারি, তাহলে কিন্তু আরেকটা অঘটন ঘটতে পারে। এজন্য বাস্তবতার নিরিখে কাজ করতে যাচ্ছি।”

 আরও চার-পাঁচ বছর আগে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রধান ফটকের সামনে ফুটব্রিজ নির্মাণের দাবি উঠলেও ‘নানা বাধার মুখে’ তা সম্ভব হয়ে উঠেনি বলে মন্তব্য করেন তিনি। তবে সেই বাধার বিষয়টি পরিষ্কার করেননি মেয়র।
রাজধানীর সড়কগুলোর নিচে গ্যাস, পানিসহ বিভিন্ন সংযোগের অব্যবস্থাপনা চিত্র তুলে ধরে উন্নয়ন কাজে খোঁড়াখুঁড়ি করতে গিয়ে বাধার কথাও বলেন আতিকুল। 

“এই ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল বিভিন্ন ধরনের ইউটিলিটি লাইন। গ্যাস লাইন, ওয়াসার লাইন, ইলেকট্রিসিটি লাইন- মাকড়সার মতো ছড়িয়ে আছে। আমাদের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, আপ টু ডেট জানাচ্ছেন। তারা বলছেন, এসবের শিফটিং বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। তাই আমাদের অনেক সময় লাগছে।

“ইমারজেন্সি কোনো কাজ করতে গেলে কিন্তু সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। সময় আসছে ম্যাপিং করার…সেন্ট্রাল ম্যাপ থাকলে ইউটিলিটি লাইন কোন দিকে দিয়ে গেল জানা যাবে।”

মেয়র জানান, আবরার ফুটব্রিজের পাইলিংয়ের কাজ শেষ হয়ে গেছে। ঈদের সুপার স্ট্রাকচার দৃশ্যমান হবে।

ঈদের সময় নাগরিকদের নিরাপত্তায় পুলিশের সঙ্গে সমন্বয় করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনও কাজ করবে বলে জানান আতিকুল।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।