পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে নিহত ৪

news-details
আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

দলীয় পতাকা সরানোকে কেন্দ্র করে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগণায় সংঘর্ষে জড়িয়েছে বিজেপি এবং তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাকর্মীরা। এতে চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

গতকাল শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাট মহকুমার সন্দেশখালি ন্যাজার্টে থানা এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে নিহতরা সবাই গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন। সংঘর্ষের পর ওই এলাকায় বিপুল পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, সন্দেশখালি ১ নম্বর ব্লকের হাটগাছা পঞ্চায়েতের ডাঙ্গিপাড়ায় দুটি দলের দুটি সভায় চলছিল। ওই সভা শেষ থেকে দুপক্ষের নেতাকর্মীরা সংঘর্ষে জড়ান।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, প্রথমে ওই এলাকায় তৃণমূলের বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে তৃণমূলের কর্মীরা বিজেপির পতাকা খুলতে শুরু করলে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয় বলে দাবি করেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু। কিন্তু জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের পাল্টা অভিযোগ, বৈঠক শেষে মিছিল বের করেছিল তৃণমূল। সেই মিছিলে হামলা চালিয়ে ২৬ বছর বয়সী তৃণমূল কর্মী কায়ুম মোল্লাকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এ বিষয়ে রাজ্যের বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর দাবি, সংঘর্ষে তাদের দলের পাঁচ কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে তিনজনের লাশ পাওয়া গেলেও বাকি দুজনের লাশ পুলিশ সরিয়ে ফেলেছে।

অন্যদিকে তৃণমূল নেতা জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, আমাদের এক তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। বিজেপির কর্মীরা তাকে মেরে ফেলেছে। তার মাথায় গুলি করা হয়েছে। বিজেপি যদি মারার রাজনীতি শুরু করে আমরাও ছাড়ব না।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।