ব্রেকিং নিউজ

ছাত্রদল নিয়ে আমরা উভয় সংকটে: গয়েশ্বর

news-details
রাজনীতি

আমাদের প্রতিবেদক 

ছাত্রদল নিয়ে উভয় সংকটে পড়েছি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। 

বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে অবস্থিত নিজ চেম্বারে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

ছাত্রদলের চলমান আন্দোলন ও কমিটির বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘এটা নিয়ে আমরা উভয় সংকটে। ছাত্ররা দীর্ঘদিন জেল খাটলো, মামলা এবং পুলিশের হয়রানির স্বীকার হলো। তাদের অবদানের বিনিময়ে কী পাবে? কী মূল্যায়ন হবে? দোষটা কার? দোষ কারও নয়। কারণ, গণতান্ত্রিক পরিবেশ না থাকলে কোনও রাজনৈতিক দল তার কাজটি সঠিকভাবে করতে পারে না।’

তিনি আরও বলেন, ছাত্রদল বড় একটি সংগঠন। এই সংগঠনের আন্দোলন-সংগ্রামের অনেক ঐতিহ্য আছে। তবে অতীতের মতো ওদের আন্দোলনের ধারাবাহিক ঐতিহ্যটা নাই। কিন্তু তারপরও তো তারা প্রচেষ্টা করে।

গয়েশ্বর বলেন, তাদের থাকার কথা কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে। কিন্তু দীর্ঘ ১২ বছর ধরে তারা ক্যাম্পাসে যেতে পারে না। তাই তাদের কর্মকাণ্ডটা ক্যাম্পাসভিত্তিক হচ্ছে না। ছাত্রদের নিয়ে কর্মকাণ্ডটা তারা করতে পারছে না।

ছাত্রদলের নিয়মিত কাউন্সিল হওয়া দরকার বলে মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই নেতা বলেন, কিন্তু দেশে কাউন্সিল হওয়ার মতো পরিস্থিতি নাই। কাউন্সিল নিয়মিত হলে ছাত্ররা তাদের অবদান অনুযায়ী পুরস্কৃত হতো।

গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, আমরা তাদের কথাগুলো শুনে তা সমাধান করা চেষ্টা করবো। আমি বিশ্বাস করি, ওরা এটা বুঝবে। সুতরাং ওদের সঙ্গে আলাপ করে এর সমাধান করা হবে।

বিএনপি একটি বিশৃঙ্খল রাজনৈতিক দল- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এই বক্তব্য প্রসঙ্গে গয়েশ্বর বলেন, তাকে বলবো নিজের চরকায় তেল দেন, নিজের চেহারাটা আয়নায় দেখুন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট করে বিএনপির কী লাভ হলো জানতে চাইলে বিএনপির এই নেতা বলেন, এখন কোনও দলের লাভ-ক্ষতির হিসাব করার সময় না।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে কোনও আন্তর্জাতিক চাপ নেই- ক্ষমতাসীন দলের এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে গয়েশ্বর বলেন, দেশের সমস্যা দেশেই সমাধান করতে হবে। খালেদা জিয়াকে কেরানীগঞ্জ কারাগারে নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকারের যখন ইচ্ছে তখন যে কোনও জেলখানাতে নিতে পারে। এটা সরকারের ইচ্ছা। এখানে কোনও প্রতিক্রিয়া নাই।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।