আইসিইউ’র সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে মানুষ বিদেশমুখী হবে না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

news-details
জাতীয়

আমাদের প্রতিবেদক

চলতি বছরে জরুরী ভিত্তিতে দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে সরকার প্রায় ৫শ’টি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) স্থাপন করবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, এমপি। তিনি বলেন, পর্যাপ্ত আইসিইউ না থাকায় উন্নত চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনে হিমশিম খাচ্ছে অস্বচ্ছল রোগীরা । বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ কেন্দ্রে প্রতিদিন গড়ে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা ব্যয় করতে হয়। দেশের সাধারণ মানুষের পক্ষে চিকিৎসার এই উচ্চ ব্যয় বহন করা খুবই কষ্টকর। আইসিইউ’র সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে দেশের মানুষকে চিকিৎসার জন্য আর বিদেশমুখী হতে হবে না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানস্ত ওয়েস্টিন হোটেলে ক্রিয়েটিভ মিডিয়া আয়োজিত ‘ স্বাস্থ্যসম্মত জীবন, কর্মক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং স্কুলে স্বাস্থ্য শিক্ষা বিষয়ের প্রচারণা কার্যক্রম’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন । স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি ক্লিনিক হেলথ সাপোর্ট ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইফ স্টাইল এ্যান্ড হেলথ এডুকেশন ও প্রোমোশনের লাইন ডাইরেক্টর ডা. মো. এহসানুল কবির, ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান সৈয়দ বোরহান কবির প্রমূখ।

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবার মান আরও বৃদ্ধি করতে সরকার বহুমুখী উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সীমিত সম্পদ ব্যবহার করে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেক্টরে অনেক উন্নতি ঘটিয়েছে সরকার। এই সেক্টরের অবকাঠামো বাড়ানোর পাশাপাশি জনবল নিয়োগ অব্যাহত রয়েছে। সারাদেশে সরকারি হাসপাতাল, স্বাস্থ্যকেন্দ্র, কমিউনিটি ক্লিনিকসহ সব ক’টি সরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রসমূহে বিনামূল্যে ওষুধ সরবরাহ করা হয়ে থাকে। বিভিন্ন রোগের জটিল অপারেশন হয়ে থাকে নামমাত্র খরচে। তবে দেশের বিপুল জনসংখ্যার বিপরীতে সেবাকেন্দ্র ও জনবল কম থাকায় জনগণের প্রত্যাশিত মানের সেবা প্রদান কিছুটা ব্যাহত হয়ে থাকে। সকলের সহযোগিতা পেলে এই ঘাটতিটুকুও দূর করা সম্ভব বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।