বিরামপুরে ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত শিশুকে তুলে নিয়ে হত্যা

news-details
দেশজুড়ে

দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার কৃষক আখতারুজ্জামান শাহিন ও গৃহিণী রোজিনা দম্পতির একমাত্র ছেলে আশিক (২)। রাতে ছেলেকে দুজনের মাঝে নিয়ে ঘুমাতেন তাঁরা। ব্যতিক্রম হয়নি গতকাল শুক্রবার রাতেও। গরমের কারণে ঘরের দরজা খোলা ছিল। 

আজ শনিবার ভোরে ঘুম ভেঙে শাহিন দেখেন, তাঁদের সন্তান তাঁদের মাঝে নেই। পরে সন্তানের লাশ পান তাঁরা।

এই দম্পতি ও প্রতিবেশীরা জানান, শাহিনের মোবাইল ফোনটিও পাওয়া যায়নি। সন্তানকে খুঁজতে থাকেন তাঁরা। এক প্রতিবেশীর ফোনে শাহিনের চুরি যাওয়া মোবাইল নম্বর থেকে কল আসে। আশিককে ফেরত দেওয়ার বিনিময়ে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন দুর্বৃত্তরা। সকাল নয়টা পর্যন্ত দুর্বৃত্তরা চারবার ফোন দিয়ে টাকা দাবি করে। এ সময়ের মধ্যে তাদের টাকা দেওয়া হয়নি। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে দুর্বৃত্তরা ফোন দিয়ে জানায়, আশিকের লাশ হামলাকুড়ি গ্রামে বাড়ির পাশের পাটখেতে আছে। বিষয়টি জানতে পেরে পরিবার ও প্রতিবেশীরা শাহিনের বাড়ির পাশের একটি পাটখেত থেকে আশিকের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে।

পরিবার ও প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে বিনাইল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম  বলেন, ঘটনাটি পরিকল্পিত। এর সঙ্গে স্থানীয়রাও জড়িত আছেন বলে অনেকে আশঙ্কা করছেন।

বিরামপুর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান বলেন, এটি একটি বর্বর ঘটনা। দুই বছরের অবুঝ শিশুকে এভাবে যারা হত্যা করেছে, দ্রুত সময়ের মধ্যে দুর্বৃত্তদের আইনে আওতায় আনা হবে। পুলিশ দোষী ব্যক্তিদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।