ব্রেকিং নিউজ

ডিআইজি মিজানের ভাগনে এসআই মাহমুদুল কারাগারে

news-details
আইন-আদালত

আমাদের প্রতিবেদক

আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন সংক্রান্ত দুদকের করা মামলায় পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের ভাগনে এসআই মাহমুদুল হাসানকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এর আগে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন তিনি। তবে দুদকের আইনজীবীরা জামিনের বিরোধিতা করলে উভয় পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েস জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

শুনানিতে এসআই মাহমুদুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রেজাউল করিম ও কাজী নজিবুল্লাহ হিরু। অপরদিকে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল ও জাহাঙ্গীর আলম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এসআই মাহমুদুল হাসান আদালতে আত্মসমর্পণ করে আগাম জামিনের জন্য আবেদন করেন। তবে তার জামিনের বিরোধিতা করে আদালতে বক্তব্য দেন দুদকের আইনজীবীরা। এ সময় চাকরির বেতন ও অর্জিত সম্পদের হিসেবে গড়মিলের প্রশ্নে মাহমুদুলের আইনজীবী কাজী নজিবুল্লাহ আদালতে বলেন, চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাহমুদুল ব্যবসা করতেন। আদালত উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে এসআই মাহমুদুল হাসানের জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

এর আগে, গত ২ জুলাই (সোমবার) দুদকের একই মামলায় আগাম জামিনের আবেদন করে আদালতে হাজির হলে ডিআইজি মিজানুর রহমানকে কারাগারে পাঠায় ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত। এ সময় বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে হাজিরের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ২৪ জুন ৩ কোটি ৭ লাখ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও ৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা অবৈধভাবে অর্জনের অভিযোগে পুলিশের ডিআইজি মিজানুরের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। মামলায় মিজানুর রহমান, স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রত্না, ছোট ভাই মাহবুবুর রহমান ও ভাগনে পুলিশের কোতোয়ালি থানার এসআই মো. মাহমুদুল হাসানকে আসামি করা হয়।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।