সিরাজগঞ্জে পরিবহন ধর্মঘট দ্বিতীয় দিনে

news-details
দেশজুড়ে

      সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

রাজধানী ঢাকার মহাখালী ও সিরাজগঞ্জের পরিবহন সেক্টরের নেতাদের পরস্পর বিপরিতমুখী অবস্থানের কারণে সিরাজগঞ্জ জেলায় অনির্দিষ্ট কালের পরিবহন ধর্মঘট দ্বিতীয় দিনে গড়িয়েছে।

চলমান বন্যার পাশাপাশি সিরাজগঞ্জ জেলায় পরিবহন ধর্মঘটের কারণে দুর্ভোগের নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে।

জেলার বন্যার্ত মানুষজনের দুভোর্গ ও প্রশাসনের নিষেধ উপেক্ষা করে সিরাজগঞ্জ জেলার পরিবহন সেক্টরের নেতারা বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেন।

ধর্মঘট সফল করতে শুক্রবার সকাল থেকে পরিবহন নেতারা শহরের এম.এ.মতিন বাস টার্মিনালসহ কড্ডার মোড়ে অবস্থান নেন।

সেবা পরিবহন বাস সার্ভিসের পৃথক রুট নিয়ে রাজধানীর মহাখালীর পরিবহন মালিকদের সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরে আগের দেওয়া আলিটমেটাম অনুযায়ী সিরাজগঞ্জের বাস মালিক সমিতি ঐক্য পরিষদের ব্যানারে বৃহস্পতিবার থেকে এ ধর্মঘটের ডাক দেয়।

ধর্মঘটের কারণে সিরাজগঞ্জ জেলা শহর থেকে ঢাকা, রাজশাহী, পাবনা, কুষ্টিয়া, যশোহর, বগুড়া, রংপুর, সৈয়দপুর, দিনাজপুর, পঞ্চগর, নওগা, জয়পুরহাটসহ অন্যান্য জেলা বাদেও জেলার সবকটি উপজেলার দিকে আভ্যন্তরীণ রুটে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এদিকে, চলমান বন্যার কারণে জেলা সদর, কাজিপুর, শাহজাদপুর, উল্লপাড়া, চৌহালী ও বেলকুচিসহ যমুনা চরাঞ্চলের জনসাধারন এমনিতেই দুর্ভোগের মধ্যে রয়েছেন। তার ওপর ধর্মঘটে সাধারণ মানুষের চলাচলের বাস বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগ শুরু হয়েছে।

চলমান জটিলতা নিরশনে জরুরি বাস্তব ও কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণে সরকারের ঊর্ধ্বতনসহ সংশ্লিষ্টদের নিকট দাবি উঠেছে।

সিরাজগঞ্জ বাস মালিক সংগঠনের সভাপতি আলহাদি আলমাজি জিন্নাহ বলেন, ঢাকার মহাখালী পরিবহন নেতাদের বিমাতাসুলভ আচরণের কারণেই আমরা বাধ্য হয়ে ধর্মঘটের ডাক দেই। সমস্যা সমাধানে সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক উভয় পক্ষকে নিয়ে আলোচনা করার পরামর্শ দিলেও ঢাকার মহাখালীর নেতারা জেলা প্রশাসকের পরামর্শ মানেনি।

মহাখালী মালিক সংগঠনের সাধারণসম্পাদক আব্দুল মান্নান বলেন, আমরা বরাবরই ছাড়ের মন মানসিকতা রাখি। তাদের একতরফা ৬০/৭০টি বাস ঢাকায় চলবে, পক্ষান্তরের আমাদের একটিও চলবে না তা হয়না।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা আরটিসির ভাইস চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন বলেন, প্রশোসনের পক্ষ্য থেকে উভয়কে নিয়ে আলোচনা করা হলেও তা ফলপ্রসূ হয়নি। বিআরটিএ চেয়ারম্যান এককভাবে সিরাজগঞ্জের মালিক নেতাদের ডাকায় সমঝোতা হয়নি। মালিক-শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের আলাদা পত্র দিয়ে আগামী রোববার বিআরএটিএ আবার ডেকেছে। বন্যার দুর্ভোগের  সময় ধর্মঘট না ডাকার জন্য অনুরোধ করা হলেও তারা সেটি মনেনি।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।