মির্জাগঞ্জে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রের হাতের আঙ্গুল ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ

news-details
দেশজুড়ে

মোঃ সোহাগ হোসেন, মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) থেকে 

ডাস্টার দিয়ে আঘাত করে এক শিক্ষক তৃতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর ডান হাতের আঙ্গুল ভেঙ্গে দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আজ মঙ্গলবার ওই শিক্ষার্থীর বাবা বিচার চেয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ওই শিক্ষার্থীর নাম শুভ (৯)। সে উপজেলার উত্তর সুবিদখালী গ্রামের সঙ্কর হাওলাদারের ছেলে। শুভ উপজেলা উত্তর সুবিদখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র। অভিযোগে রয়েছে, ওই শিক্ষক প্রায় শিক্ষার্থীদের সাথে খারাপ ব্যবহার এবং মারধর করে। 

মঙ্গলবার বিকালে শুভর বাসায় গিয়ে দেখা যায়, তার ডান হাত প্লাস্টার করা। শুভর বাবা সঙ্কর হাওলাদার জানান, গত সোমবার পড়া না হওয়ায় ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ ইলিয়াস হোসেনের হাতে থাকা ডাস্টার দিয়ে শুভকে মারধর করতে থাকেন। এ সময় ডাস্টারের আঘাতে শুভর ডান হাতের আঙ্গুল ভেঙ্গে যায়। বিকেলে বাসায় আসার পর তার ডান হাত ফুলে গেলে সে বিষয়টি তার মাকে জানায়। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে হাতের অবস্থা আশঙ্কা জনক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। 

সঙ্কর হাওলাদার বলেন, আমার ছোট বাচ্চাটাকে অমানুষিক ভাবে পিটিয়ে হাতের আঙ্গুল ভেঙ্গে দিয়েছে। আমি এর উপযুক্ত বিচার চাই। 

অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মোঃ ইলিয়াস হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমি কিছুই জানিনা।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা ঝর্ণা জানান, এ বিষয়ে আমি এখন ও কোন কিছু জানি না। তবে এ রকম কোন কিছু হলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

উপজেলা প্রাথমিক (ভারপ্রাপ্ত) শিক্ষা অফিসার মোসাঃ জিনাত জাহান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। 
 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।