রাজধানীতে ডাকাতি, লুটের আগে গৃহকর্তাকে হত্যা

news-details
জাতীয়

আমাদের প্রতিবেদক

রাজধানীর যাত্রাবাড়িতে মো. মহিবুল্লাহ (৬৫) নামের এক গৃহকর্তাকে হাত-পা বেঁধে গলা কেটে হত্যা করেছে ডাকাত। পরে ওই বাসা থেকে লুট করে পালিয়ে যায় ডাকাতদলটি। শনিবার দিবাগত রাতে যাত্রাবাড়ির মমিনবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত মহিবুল্লাহর বাড়ি লক্ষীপুর জেলার লক্ষীপুর থানার বশিবপুর গ্রামে। তিনি পরিবার নিয়ে যাত্রাবাড়ির মমিনবাগ এলাকার এ/সি-৩৬ নম্বর বাড়ির নিচতলায় ভাড়া থাকতেন।

নিহত মহিবুল্লাহর স্ত্রী হাসিনা ফেরদৌস জানান, গতরাত আড়াইটার দিকে বাসার কলিংবেল টিপে ঘরে ঢুকে পড়ে চার-পাঁচজন মুখোশধারী। তারা বাসার সবার হাত-পা বেঁধে ফেলে। স্বামী মহিবুল্লাহ তাদেরকে বাধা দিতে গেলে তাকে খাটের ওপর ফেলে হাত-পা বেঁধে গলা কেটে হত্যা করে। এরপর ডাকাতদল নগদ অর্থ ও মালামাল লুট করে পালিয়ে যায়। সকালে ঘরের দরজা খোলা দেখে এলাবাসী ভেতরে এসে গলা কাটা লাশ দেখে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

যাত্রাবাড়ি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শহিনুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্ততি নিচ্ছে নিহতের পরিবার।

মহিবুল্লাহ ওই বাসায় স্ত্রী হাসিনা ফেরদৌস (৪৮) ও মেয়ে মহসিনা আফরোজ প্রীতিকে (২৫) নিয়ে বসবাস করছিলেন। তাঁর অপর মেয়ে হাসনা-হেনা (২৬) শ্বশুরবাড়িতে থাকেন। ছেলে শামিম হাসান (২২) পড়াশুনা করছেন ধানমন্ডির একটি আবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। 


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।