টঙ্গীতে ছাত্রলীগ কর্মী প্রিন্স হত্যার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

news-details
দেশজুড়ে

  ।। গাজীপুর প্রতিনিধি।। 

গাজীপুরের টঙ্গীতে আধিপত্য বিস্তারের বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রলীগ কর্মী প্রিন্স মাহমুদ নাহিদ হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক মো. কামাল উদ্দিন এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, আগের রাতে ঢাকা ও টঙ্গীতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এরা হলেন- টঙ্গী পূর্ব থানার বৌ-বাজার এলাকার আব্দুল মোতালেব খলিফার ছেলে মামলার প্রধান আসামি মো. আলাউদ্দিন রাফি (২৭), তার সহযোগী নরসিংদীর শিবপুর থানার হরিনারায়ণপুর এলাকার সাদী মিয়ার ছেলে সাদ্দাম হোসেন (১৯) ও একই জেলার হাজীপুর এলাকার মো. বেদন মিয়ার ছেলে মো. আহাদুল ইসলাম রনি (২০)।

টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকার জহিরুল ইসলামের ছেলে প্রিন্স টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের কর্মী ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে কামাল বলেন, ১ মার্চ বিকালে টঙ্গী পূর্ব থানার টঙ্গী ভরান মুন্সীপাড়া রোডে শ্বশুর বাড়িতে যাওয়ার পথে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় কিছু ছেলেদের মারধর করতে দেখেন প্রিন্স।

ওই ঘটনায় প্রিন্সের পরিচিত রিফাত নামের এক ছেলেকে রাফির দলের লোকজন মারধর করেন। নাহিদ সেদিন সন্ধ্যায় রিফাতকে তার বাড়িতে দেখতে যান। সেখান থেকে ফেরার পথে রাফির নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসীদল নাহিদের গতিরোধ করে তাকে মারধর করে।

এক পর্যায়ে রাফির নির্দেশে সাদ্দাম একটি চাকু দিয়ে নাহিদের বুকের ডান পাশে কুপিয়ে জখম করে। পরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনার নাহিদের বাবান রাফিকে প্রধান আসামি করে টঙ্গী পূর্ব থানায় মামলা করেন।

গোপনে খবর পেয়ে রাফি ও সাদ্দামকে ঢাকার নিকুঞ্জ এলাকা এবং রনিকে টঙ্গী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।