ব্রেকিং নিউজ

মিনিস্টার ফ্রিজ কারখানার আগুন ৬ ঘন্টা পর নিয়ন্ত্রণে

news-details
দেশজুড়ে

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরে মাইওয়ান ইলেকট্রনিক্সের সহযোগী প্রতিষ্ঠান মিনিস্টার হাই-টেক পার্ক লিমিটেডের কারখানায় শুক্রবার ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। প্রায় ৬ ঘন্টা চেষ্টার পর ফায়ার সার্ভিসের ১৬ টি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুন পুরোপুরি নেভাতে সন্ধ্যা পর্যন্ত ড্যাম্পিংয়ের কাজ করছিল ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। আগুনে ওই কারখানা ভবনের ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলায় প্রস্তুত করে রাখা ফ্রিজ, টিভি, রাইস কুকার, ইস্ত্রিসহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক পণ্য ও মালামাল পুড়ে গেছে ও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘটনার তদন্তের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৭ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠণ করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মী, এলাকাবাসী ও কারখানা সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ধীরাশ্রম এলাকাস্থিত মাইওয়ান ইলেকট্রনিক্সের সহযোগী প্রতিষ্ঠান মিনিস্টার হাই-টেক পার্ক লিমিটেডের কারখানার ৬ তলা ভবনের ৫ম তলায় শুক্রবার শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে আগুনের সূত্রাপাত হয়। কারখানার ৭ম তলায় টিন সেড রয়েছে। ভবনটির ৬ষ্ঠ তলায় কারখানার গুদামে তৈরি ফ্রিজ, টেলিভিশন, রাইস কুকারসহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী রফতানী ও বিক্রির জন্য এবং ৫ম তলায় কার্টুন সামগ্রী মজুদ করে রাখা ছিল। এদিন সাপ্তাহিক ছুটির কারণে কারখানায় উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ ছিল। সকালে ৫ম তলায় আগুনের সুত্রাপাত হওয়ার পর আগুনের লেলিহান শিখা পুরো ফ্লোরে ছড়িয়ে পড়ে। এসময় কারখানার নিরাপত্তা কর্মী ও স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। অল্প সময়ের মধ্যেই আগুন ওই ভবনের ৫ম তলা ছাড়িয়ে ৬ষ্ঠ তলার পুরো ফ্লোরে ছড়িয়ে পড়ে ভয়াবহ আকার ধারণ করে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের জয়দেবপুর, টঙ্গী, শ্রীপুর, কালিয়াকৈর ও উত্তরাসহ রাজধানীর বিভিন্ন ষ্টেশনের ১৬টি ইউনিটের কর্মীরা ভারী যন্ত্রপাতি নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। কারখানার নিজস্ব পানির উৎস ও অগ্নিনির্বাপন সামগ্রী পর্যাপ্ত না থাকায় আগুন নেভানোর কাজ ব্যাহত হয়। এক পর্যায়ে পাশর্^বর্তী মার্কওয়্যার লিমিটেড কারখানার ডোবাসহ আশেপাশর বিভিন্নস্থান থেকে পানি সংগ্রহ করে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করতে থাকে। প্রায় ৬ ঘন্টা চেষ্টার পর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। আগুন পুরোপুরি নেভাতে সন্ধ্যা পর্যন্ত ড্যাম্পিংয়ের কাজ করছিল তারা। আগুনে ওই কারখানা ভবনের ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলায় প্রস্তুত করে রাখা ফ্রিজ, টিভি, রাইস কুকার, ইস্ত্রিসহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক পণ্য ও মালামাল পুড়ে গেছে ও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৭ম তলার টিনসেডও। ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় নিহতের কোন ঘটনা না ঘটলেও আগুন নেভাতে গিয়ে রুবেলসহ দু’জন আহত হয়েছে।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।