ব্রেকিং নিউজ

যৌবন ধরে রাখতে করণীয়

news-details
স্বাস্থ্য

ডা. আলমগীর মতি

যৌন অক্ষমতার প্রথম ধাপের চিকিৎসায় দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার্য কিছু ভেষজ খুব উপকার করে থাকে। যেমন- রসুন। যৌন অক্ষমতার ক্ষেত্রে রসুন ভালো ফল দেয়। রসুনের আরেক নাম ‘গরিবের পেনিসিলিন’। কারণ এটি অ্যান্টিসেপ্টিক ও রোগ প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে। যৌন ইচ্ছা ফিরিয়ে আনতে এর ব্যবহার কার্যকরী। কোনো রোগের কারণে বা দুর্ঘটনায় যৌন ইচ্ছা কমে গেলে এটি তা পুনরায় ফিরে পেতে সাহায্য করে। এ ছাড়া যদি কোনো ব্যক্তির যৌন ইচ্ছা খুব বেশি হয় বা তা মাত্রাতিরিক্ত হয়, যার অত্যধিক প্রয়োগ তার নার্ভাস সিস্টেমের ক্ষতি করতে পারে- এমন ক্ষেত্রেও রসুন খুবই কার্যকরী।

ব্যবহারের ক্ষেত্রে প্রতিদিন দুই থেকে তিনটি রসুনের কোয়া কাঁচা অবস্থায় চিবিয়ে খান। এতে যৌন ইচ্ছা কমে গিয়ে থাকলে তা বাড়বে। গমের তৈরি রুটির সঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেলে তা শরীরে স্পার্ম উৎপাদনের মাত্রা বাড়ায় এবং সুস্থ স্পার্ম তৈরিতে সাহায্য করে। পেঁয়াজও উপকারী। কাম-উত্তেজক ও কামনা বৃদ্ধিকারী হিসেবে পেঁয়াজ বহুদিন থেকেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

ব্যবহারের ক্ষেত্রে সাদা পেঁয়াজ পিষে নিয়ে মাখনের মধ্যে ভালো করে ভেজে নিয়ে প্রতিদিন মধুর সঙ্গে খেলে তা থেকে উপকার পাওয়া যায়। এটি খাওয়ার আগে ঘণ্টা দুয়েক পেট খালি রাখতে হবে। এভাবে প্রতিদিন খেলে স্খলন, শীঘ্রপতন বা ঘুমের মধ্যে ধাতুপতন সমস্যার সমাধান হওয়া সম্ভব। এ ছাড়া পেঁয়াজের রসের সঙ্গে কালো খোসাসহ বিউলির ডালের গুঁড়া সাতদিন পর্যন্ত ভিজিয়ে রেখে শুকিয়ে নিয়মিত ব্যবহার করলে শারীরিক মিলনকালীন সুদৃঢ়তা বজায় রাখবে।

লেখক : বিশিষ্ট হারবাল

গবেষক ও চিকিৎসক। ০১৯১১৩৮৬৬১৭

০১৬৭০৬৬৬৫৯৫


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।