ব্রেকিং নিউজ

ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে সিলগালা তিন ফুটবল ক্লাব

news-details
ক্রাইম নিউজ

আমাদের প্রতিবেদক

২৪ ঘন্টাই ভেতরে চলে কোটি-কোটি টাকার রমরমা ক্যাসিনো ব্যবসা, অথচ ক্লাবগুলো অর্থ সংকটে ভালো দল গড়তে পারে না প্রতি বছর। ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে এখন দেশের পুরো স্পোর্টস ক্লাবগুলোই আছে আতঙ্কে। ইতিমধ্যেই রাজধানির তিন এতিহ্যবাহী ক্লাব ফকিরাপুল ইয়ংমেন্স, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়াচক্র ও ওয়ান্ডারার্সকে সিলগালা করা হয়েছে।
 
সম্প্রতি ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে আলোচিত তিন ক্লাবের একটি ফকিরেরপুল ইয়াংমেন্স ক্লাব। র‌্যাবের অভিযানে গেইটে পড়েছে সিলগালা। এক রাতেই উদ্ধার হয়েছে প্রায় ২৫ লাখ টাকা, জুয়ার সরঞ্জাম, তরুণী সহ আটক প্রায় দেড়শত।

২০১৬-১৭ মৌসুমে বিসিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়ে প্রিমিয়ারে ওঠে ইয়াংমেন্স। তবে, প্লেয়ার কেনা কিবাং টিম চালানোর মতো কোন অর্থনৈতিক সামার্থ্য তাদের নেই, এমন কারণ দেখিয়ে তারা প্রমোশন নিতে রাজি হয়নি।

অথচ, সে মৌসুমের রানার্স আপ, সাইফ স্পোটিং পেশাদার লিগে যাত্রা করেই বনে গেছে দেশের ইতিহাসে অন্যতম সেরা প্রোফেশনাল ক্লাব। আইনবিরোধী কাজের দায়ে চ্যাম্পিয়নদের গেইটে তালা।

শুধুই কী ইয়াংমেন্স, পেশাদার লিগের দল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রড়ীচক্র, লম্বা সময় ধরে ঝুলছে দেনার দায়ে। মানসম্মত খেলোয়াড় কেনা তো দূরের কথা, ফুটবলারদের যে ভবনে রাখা হয়, দীর্ঘদিন তার ভাড়াই মেটাতে পারিনে কর্তৃপক্ষ। অথচ, তাদের ক্লাবে রাত হলেই বসে কোটি টাকার জুয়ার আসর।

ক্যাসিনো ব্যবসার দায়ে সিলগালা হয়েছে ফুটবল ক্লাব ঢাকা ওয়ান্ডারার্সও। উদ্ধার হয়েছে লাখ লাখ টাকা। অথচ এই ক্লাবের ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে আছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু এই ক্লাবেরই ফুটবলার ছিলেন এক সময়। এসব ক্লাবই ১২ মাস ভোগে অর্থাভাবে।

অনেকেরই ধারনা শুধু এই তিনটি-ই নয়, দেশের পুরোনো স্পোর্টস ক্লাবগুলোর প্রায় সবখানেই একই পরিবেশ। চলছে একইভাবে। 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।