খাবার থেকে ফরমালিন দূর করবেন যেভাবে

news-details

বাজার থেকে মাছ, সবজি, ফলমূল যাই কিনুন না কেন একদম তাজা পাওয়া প্রায় অসম্ভব ব্যাপার। আজকাল সব কিছুতেই ফরমালিন মেশানো থাকে।সাধারণত যেকোন তাজা খাবারে ফরমালিন প্রিজারভেটিভ.......

বাজার থেকে মাছ, সবজি, ফলমূল যাই কিনুন না কেন একদম তাজা পাওয়া প্রায় অসম্ভব ব্যাপার। আজকাল সব কিছুতেই ফরমালিন মেশানো থাকে।সাধারণত যেকোন তাজা খাবারে ফরমালিন প্রিজারভেটিভ হিসাবে ব্যবহার করা হয় সেটি দীর্ঘদিন ভাল রাখতে। উন্নত দেশেও এটি ব্যবহার করা হয় ।তবে সেটা মানবদেহের জন্য সহনীয় মাত্রায় থাকে। কিন্তু আমাদের দেশে যার যেভাবে ইচ্ছা খাবারে ফরমালিন ব্যবহার করছেন। যা মানবদেহের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক।

মাছ,শাকসবজি কিংবা ফলমূল থেকে ফরমালিন দূর করার বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে। যেমন-

১. সবজি কিংবা ফলে ঠিক কি ধরনের প্রিজারভেটিভ দেওয়া আছে যেহেতু আপনার জানা নেই তাই সবজি বা ফলের উপর অংশ বা চামড়া ছুলে ফেলতে পারেন।

২. বাজার থেকে মাছ, সবজি কিংবা ফল-যাই কিনুন না কেন বাড়িতে এনে আধঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।এপরপর পানিটা ফেলে আবারও ১৫ মিনিট ভিজিয়ে সেগুলো ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। 

৩. পানিতে লবণ মিশিয়েও মাছ, সবজি বা ফল ভিজিয়ে রাখতে পারেন এক ঘণ্টা। লবণ ফরমালিন কাটাতে সাহায্য করবে। 

৪. যদি আপনি খাবারের স্বাদ ঠিক রাখতে চান তাহলে ৯৫ ভাগ পানিতে ৫ ভাগ ভিনেগার মিশিয়ে মাছ, সবজি,ফল ভিজিয়ে রাখুন। এতে সামান্য হলুদ গুড়াও মেশাতে পারেন। যদি এক ঘন্টা এগুলো ভিজিয়ে রাখেন তাহলে ফরমালিন অনেকখানি দূর হবে। রান্নার ১৫ মিনিট আগে মাছ এবং সবজি আরেকবার ধুয়ে নিন। 

৫. দুধে ফরমালিন দেওয়া থাকলে তা দূর করা সম্ভব নয়। যদি দুধ নিয়ে আপনার কোনও সন্দেহ থাকে তাহলে অল্প পরিমাণ কাঁচা দুধ রাতে ফ্রিজের বাইরে রেখে দিন। যদি এতে কোনও প্রিজারভেটিভ দেওয়া না থাকে তাহলে সকালে এটা টক হয়ে যাবে। আর যদি দুধটা জ্বাল দেওয়ার পরে ভাল থাকে তাহলে তাতে ফরমালিন মেশানোর সম্ভাবনা রয়েছে।  সূত্র : হায়ারিংগো