ব্রেকিং নিউজ
  1. রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে নারী নির্যাতন মামলার আসামি সাফাত আহমেদের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে প্রেরণ
  2. ৪ ঘণ্টার চেষ্টায় সোহরাওয়ার্দী মেডিকেলের আগুন নিয়ন্ত্রণে, ১২শ রোগীকে অন্যত্র স্থানান্তর
  3. বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ প্যাকেজ ঘোষণা; কোরবানি ছাড়া খরচ ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা; হজে যাবেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন : হাব
  4. মুক্তিযুদ্ধে ভূমিকার জন্য জামায়াত ক্ষমা চাইলেও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কাজ বন্ধ হবে না : ওবায়দুল কাদের
  5. ২১ মে থেকে দেশের সব টেলিভিশন চ্যানেল বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট ব্যবহার করবে : অ্যাটকো
  6. রাজধানী ও যশোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
  7. আইএসে যাওয়া শামীমার নাগরিকত্ব কেড়ে নিচ্ছে ব্রিটেন
  8. এসএসসির ফল পরিবর্তনের ‘নিশ্চয়তা’য় ৪ প্রতারক আটক
  9. শপথ নিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের ৪৯ সদস্য
  10. মাল‌য়ে‌শিয়া‌য় অগ্নিকাণ্ডে বাংলাদে‌শিসহ নিহত ৬
  11. চলে গেলেন সঙ্গীতশিল্পী প্রতীক চৌধুরী

লক্ষ্মীপুরে চিকিৎসকের অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

news-details
দেশজুড়ে

।। লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ।। 

লক্ষ্মীপুরে চিকিৎসকের অবহেলায় এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুর ১২টার দিকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে।

মৃত ব্যক্তির নাম মো. বাবুল হোসেন। তিনি পৌর শহরের এক নম্বর ওয়ার্ডের সাহাপুর এলাকার কালা মিয়ার ছেলে। এই ঘটনার পর রোগীর স্বজনরা বিক্ষোভ শুরু করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

রোগীর স্বজনরা জানান, বেলা ১১টার দিকে বাবুল হোসেন বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন। সেখানে হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে ডা. সালাহ উদ্দিন শরীফকে দেখানো হয়। তিনি রোগীকে হাসপাতালের দায়িত্বরত কার্ডিওলোজি বিভাগের কনসালটেন্ট ভবানীপ্রসাদ রায়ের কাছে পাঠান। কিন্তু এসময় ভবানী রায় হাসপাতালে ছিলেন না। তিনি অন্য একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ব্যস্ত ছিলেন।

তাকে ফোন দেয়া হলে তিনি বিভিন্ন অজুহাত দিয়ে সময়ক্ষেপণ করেন। পরে উপায় না পেয়ে রোগীর স্বজনরা সিভিল সার্জনকে ফোন দেন। এর কিছুক্ষণ পরেই ভবানীপ্রসাদ হাসপাতালে আসেন। তার আগেই রোগী মারা যান। বাবুল হোসেন মারা যাওয়ার পরপরই হাসপাতালের পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

জানতে চাইলে অভিযুক্ত চিকিৎসক ভবানীপ্রসাদ রায়  বলেন, ১০-১৫ মিনিটের জন্য ব্যক্তিগত কাজে বাইরে গিয়েছিলাম। তবে রোগীর অবস্থা খারাপ থাকার কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে। তাকে সঠিক ব্যবস্থাপত্র দেয়া হয়েছিল।   

সিভিল সার্জন ডা. মোস্তফা খালেদ আহমদ  বলেন, কোনও মৃত্যুই আমাদের কাম্য নয়। দায়িত্বরত চিকিৎসকের কোনও অবহেলা থাকলে তদন্ত করে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

If you want to comment please Login. If you are not registered then please Register First