সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে খসড়া প্রতিবেদন

news-details
জাতীয়

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

সাবেক নৌপরিবহনমন্ত্রী ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী কমিটির সভাপতি শাজাহান খানকে প্রধান করে সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই কমিটির খসড়া প্রতিবেদন বিআরটিএ’র ওয়েবসাইটে জনসাধারণের মতামতের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

গত মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ’র) অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এই কমিটির তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে। আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত মতামত দেওয়ার জন্য বিআরটিএ’র ওয়েবসাইটে তদন্ত প্রতিবেদন থাকবে।

বিআরটিএ’র জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৬তম সভার সিদ্ধান্তও এ ওয়েবসাইটে তুলে দেওয়া হয়েছে। সড়ক পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে গঠিত কমিটির খসড়া প্রতিবেদনের উপর সবার মতামত বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান বরাবর ইমেইলে (chairman@brta.gov.bd) অথবা লিখিত আকারে পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

বিআরটিএ’র ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল রব্বানি বলেন, আমাদের যে কোনও জরিপ বা আইন চূড়ান্ত করার আগে জনসাধারণের মতামতের জন্য খসড়া কপি ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে জনসাধারণের মতামতের জন্য দেওয়া হয়। সেই সব মতামতের ভিত্তিতে এবং আমাদের কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্তে যে কোনও আইন বা নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়।

শাজাহান খান কমিটির প্রতিবেদনে ১১১টা সুপারিশ করা হয়। সেখানে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য উন্নত বিশ্বের সাথে তুলনা করে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কোনটি সঠিক সেই সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে।

ঢাকার যানজট নিরসনে অবৈধ পার্কিং বন্ধের কথা বলা হয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে। নগরীতে শতাধিক সড়কে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাজধানীর ১৩০টি স্থানকে বাস স্টপেজ হিসেবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ। কিন্তু এসব স্থানে না থেমে যত্রতত্র বাস থামছে। যেখানে-সেখানে যাত্রী ওঠানামা করছে। তাই যেসব স্থানকে বাস স্টপেজ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে সেখানে যাত্রী ছাউনি নির্মাণ করবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন।

কাউন্সিলের সভায় মহাসড়কে দুর্ঘটনার জন্য স্থানীয় সরকারের শাখা সড়ককে একটি কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। বলা হয়, মহাসড়কে সরাসরি যুক্ত হয়েছে শাখা সড়কগুলো। এ সড়কের ছোট গাড়িগুলো বিনা বাধায় মহাসড়কে উঠে যায়। ফলে দুর্ঘটনায় পরে। তাই মহাসড়কের সঙ্গে শাখা সড়কগুলো যুক্ত হওয়ার মুখে মোড় সৃষ্টি করা হবে। যাতে গাড়ি শাখা সড়ক থেকে সরাসরি মহাসড়কে উঠতে না পারে।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।