ফতুল্লায় দগ্ধ শিশুর পর চলে গেলেন মাও

news-details
জাতীয়

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।। 

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার গিরিধারা আবাসিক এলাকায় একটি বাসায় গ্যাস বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ শিশু সাফওয়ানের পর তার মা ফাতেমা বেগমেরও মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফাতেমার মৃত্যু হয়। এর আগে রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার শিশু সন্তান সাফওয়ানের মৃত্যু হয়। বাকি দু’জনের  অবস্থাও গুরুতর বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। এর মধ্যে ফারিয়া ৯০ শতাংশ এবং সাইফ আলী বেগের ৯৮ পুড়ে গেছে।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আগুনে ফাতেমা শরীরের ৯৪ শতাংশ পোড়া ছিল।

শনিবার রাত ৯টার দিকে ফতুল্লার ২৫৫ গিরিধারা আবাসিক এলাকার বিসমিল্লাহ টুইন টাওয়ার ছয়তলা ভবনের চারতলায় আব্দুর রহিমের স্ত্রী ফাতেমা বেগম এলপি গ্যাসের চুলায় রান্না করার জন্য ম্যাচের কাঠি জ্বালোনোর সঙ্গে সঙ্গে সিলিন্ডারে আগুন ধরে এবং তা পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

ফাতেমা বেগম (৩০) ছাড়াও তার বড় ছেলে সাইফ আলী বেগ (১৫), মেয়ে ফারিহা আক্তার ফারজানা (১২) ও সাফওয়ান আলী (১০) দগ্ধ হয়। সাফওয়ান স্থানীয় একটি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র এবং ফারিয়া পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। ফাতেমার স্বামী আব্দুর রহিম ঘটনার সময় বাসায় ছিলেন না। তিনি কর্মস্থলে ছিলেন।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।