খালেদার চিকিৎসা নিয়ে রাজনীতি করাই বিএনপির লক্ষ্য : হানিফ

news-details
রাজনীতি

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।। 

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি নয়, তার চিকিৎসা নিয়ে রাজনীতি করাই বিএনপি নেতাদের মূল লক্ষ্য বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ। খালেদা জিয়ার কারামুক্তির জন্য প্যারোল আবেদন করা হলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পদক্ষেপ নেবে বলেও জানান তিনি।

আজ সোমবার বিকেলে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপকমিটি আয়োজিত ‘ভবনের কর্মদক্ষতা ভিত্তিক অগ্নি সুরক্ষা : বর্তমান প্রেক্ষিত’ শীর্ষক সেমিনারে মাহবুব-উল আলম হানিফ এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, ‘বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হলো কারাগারে খালেদা জিয়াকে কোনো সুযোগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে না, সুচিকিৎসা দেওয়া হচ্ছেছ না। খালেদা জিয়া দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় সরকারের পক্ষ থেকে তাকে সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে দেশের সর্বোচ্চ হাসপাতালে তাকে চিকিৎসা করানো হচ্ছে।’

 

আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘আসলে খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি বা সুস্থতা নয়, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে রাজনীতি করাই বিএনপির মূল লক্ষ্য।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্যারোল আবেদনের বিষয়ে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি নিয়ে কথা উঠেছে। যদিও খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে কোনো আবেদন করা হয়নি। আবেদন করা হলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ইতিমধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন। ’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের আন্দোলনের হুঙ্কারের জবাবে আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হলে আইনি প্রক্রিয়ায়ই মুক্ত করতে হবে। এর বাইরে অন্য কোনো উপায় নেই। আন্দোলনের হুমকি দিয়ে লাভ হবে না।’

হানিফ বলেন, ‘দেশে অর্থনৈতিক উন্নতির কারণে বহুতল ভবন নির্মাণ বেড়েছে। এটাও সত্যি আধুনিক আবাসনের পাশাপাশি জীবনের ঝুঁকিও বাড়ছে। সম্প্রতি এফ আর টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা আমাদেরকে ঝাঁকি দিয়ে গেছে। এই দুর্ঘটনার পর সরকার থেকে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি, এবার যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা কার্যকরভাবে বাস্তবায়ন করা হবে। ভবন নির্মাণের সময়ই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।’

এ সময় বিএনপির সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ‘বিএনপি আসলে সব কিছুতেই রাজনীতি খোঁজে, সরকারকে দ্বোষারোপ করে। এফ আর টাওয়ারে আগুনের পর বলল, সরকারের ব্যর্থতা। এরা সরকারের ব্যর্থতা ছাড়া অন্য কিছু দেখে না, এটা দুঃখজনক।’

তিনি বলেন, ‘২০১৭ সালে লন্ডনের একটি ভবনে আগুনে পুড়ে ৭০ জন মারা যায়, ২০১৮ সালের শুরুতে রাশিয়াতে একটি ক্যাসিনোতে অগ্নিকাণ্ডে ১০০ জন মারা যায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রায়ই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এখন কী বিএনপি বলবে, ওইসব দেশের সরকারও ব্যর্থ। ’


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।