সকাল থেকে সারাদেশে কালবৈশাখী

news-details
জাতীয়

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

মঙ্গলবার সকাল থেকে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে কালবৈশাখী ঝড়। সকালে আকাশ ছিল মেঘলা। এরপর সকাল ১১টার দিকে রাজধানী ঢাকায় মুষলধারে বৃষ্টি হয়। 

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, মঙ্গলবার সকালে ময়মনসিংহ ও সিলেট অঞ্চলে শুরু হয় কালবৈশাখী। কালবৈশাখীর সঙ্গে ওইসব এলাকায় বজ্রসহ মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে। এর প্রভাবে ঢাকা, গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকায় বৃষ্টি হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, মঙ্গলবার রংপুর, দিনাজপুর, পাবনা, বগুড়া টাঙ্গাইল ময়মনসিংহ, কুমিল্লা ও সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব অঞ্চলের নৌবন্দরগুলোকে ২ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

দেশের অন্যান্য এলাকায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নৌবন্দরগুলোকে এক নম্বর সর্তকসংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

এদিকে গতকাল সোমবারও দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি, বজ্রসহ বৃষ্টি, শিলা বৃষ্টি ও ঝড় হয়েছে। গতকাল সকালের দিকে রাজধানী ঢাকায় এক দফা বৃষ্টি হয়। এরপর বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোদের দেখা মেলে। বেলা তিনটার দিকে হঠাৎ আকাশ কালো মেঘে ছেয়ে যায়। শুরু হয় দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি। বৃষ্টির পানিতে রাজধানীর খিলগাঁও, বসুন্ধরা, শিরপুর শ্যাওড়াপাড়া, কাজীপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। দুর্ভোগে পড়ে নগরবাসী।

এছাড়া সোমবার সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা, ফেনী ও ভোলায় বজ্রপাতে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সোমবার বিকেলে বজ্রপাতে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার কাঠইর ইউনিয়নের কলাইয়া গ্রামে আব্দুল আউয়াল (৭০) নামের কৃষকের মৃত্যু হয়। এর আগে সোমবার দুপুরে ধর্মপাশার চন্দ্রসোনার তাল হাওরে ধান কাটার সময় এক কৃষকের মৃত্যু হয়। 

সোমবার দুপুরে বজ্রপাতে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় ফেনী নদীতে মাছ শিকার করতে গিয়ে রঞ্জন জলদাস নামের এক জেলে এবং ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার জিন্নাগড় ইউনিয়নে ইটভাটায় কাজ করার সময় জসিম উদ্দিন নামের এক শ্রমিক মারা যান। 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।