ব্রেকিং নিউজ

সরকার নিজ দেশে অত্যাচারী অন্য দেশে নতজানু: রিজভী

news-details
রাজনীতি

আমাদের প্রতিবেদক

নিজ দেশের প্রতি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের মনোভাবকে 'অত্যাচার প্রকৃতির' বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, দেশ মরুভূমি হয়ে যাক, সীমান্তে প্রতিদিন বাংলাদেশি মানুষ মরুক তাতে সরকারের কিছু আসে যায় না। আওয়ামী লীগের ভাবাদর্শ হচ্ছে নিজ দেশে অত্যাচারী আর অন্য দেশের প্রতি নতজানু থাকা।

তিনি বলেন, তিস্তাসহ বিভিন্ন নদীর ন্যায্য পানির অভাবে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল উষর মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে। সেচ মৌসুম চলছে অথচ এখনই নীলফামারী, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রামসহ অন্যান্য এলাকায় সেচের পানি সংকট দেখা দিয়েছে। কিন্তু ভারত সফরকারী প্রধানমন্ত্রী সেই বিষয়ে কোনও আলোচনাই করেননি।

এ সময় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শনিবারের পরিবর্তে রোববার সমাবেশ করার কর্মসূচি ঘোষণা করেন রিজভী। নয়া পল্টনস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অথবা জাতীয় প্রেস ক্লাবের সমানে বেলা ২টায় বিএনপির উদ্যোগে সমাবেশ করার জন্য পুলিশের কাছে অনুমতি চাওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

রিজভী বলেন, পুলিশ তাদেরকে বলেছে, শনিবার একটি বিশেষ কর্মসূচি আছে। অতএব অন্য কোনও দিন হলে পুলিশের কোনো অসুবিধা হবে না। এজন্য তারা সমাবেশের তারিখ একদিন পিছিয়ে রোববার করেছেন। দলের পক্ষ থেকে এই সমাবেশে উপস্থিত হওয়ার জন্য জনগণসহ দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

কারাবন্দি অসুস্থ খালেদা জিয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এদেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা দিনের পর দিন ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। অথচ দেশনেত্রীর জামিন কিংবা সুচিকিতসার ব্যাপারে প্রতিহিংসাপরায়ণ সরকারের নিষ্ঠুরতা যেন থামছেই না।

বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকারের আচরণে জনগণের মনে এখন একটি প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে যে, দেশের একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার নীল নকশা বাস্তবায়নের পথে সরকার দ্রুততার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে কি না। জনগণ তাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাদ্ধ।সংবাদ সম্মেলনে দলের ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপিকা শাহিদা রফিক, কেন্দ্রীয় নেতা রবিউল ইসলাম রবি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।