ব্রেকিং নিউজ

শিগগিরই পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে আসবে : টিপু মুনশি

news-details
অর্থনীতি

 রংপুর প্রতিনিধি : 

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, প্রতিদিন এক থেকে দেড় হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে, শিগগিরই পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে আসবে।

আজ বুধবার সকালে রংপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে “বৈদেশীক কর্ম সংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা” শীর্ষক জনসচেতনতামূলক প্রচার, প্রেসব্রিফিং ও সেমিনারে টিপু মুনসি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে আড়াই হাজার টন পেঁয়াজের একটি চালান এসেছে। আরও কয়েকটি চালান আসার অপেক্ষায় রয়েছে। বাজার নিয়ন্ত্রণে সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। টিপু মুনশি বলেন, আমদানি করা পেঁয়াজ ছাড়াও আগামী কয়েক দিনের মধ্যে বাজারে দেশি পেঁয়াজের সরবরাহ স্বাভাবিক হবে। এতে শীঘ্রই পেঁয়াজের সংকট কেটে যাবে।

মন্ত্রী বলেন, দেশে পেঁয়াজের চাহিদা ২৫ লাখ মেট্রিক টন। দেশে যে উৎপাদন হয় তাতে চাহিদার তুলনায় আট লাখ টনের ঘাটতি থাকে। এ ঘাটতির ৯০% ভারত থেকে আমদানী করে পূরণ করা হতো। ভারত হঠাৎ করে রফতানী বন্ধ করে দেয়ায় এ সংকট সৃষ্টি হয়েছে। মিশর, তুরস্ক এবং মিয়ানমার থেকে আমদানী করতে প্রক্রিয়াগত কারণে সময় বেশী লাগায় পেঁয়াজের সাময়িক সংকট দেখা দিয়েছে।

তিনি আশ^স্ত করেন, আমরা যেমন চাল উৎপাদনে স্বয়ংস্বম্পূর্ণতা অর্জন করেছি তেমনি আগামী বছরে পেঁয়াজ উৎপাদনেও স্বয়ংস্বম্পূর্ণতা অর্জন করবো। যাতে পেঁয়াজ আর আমদানী করতে না হয় সে ব্যবস্থা করা হবে। পেঁয়াজ চাষীদের প্রণোদনা দেয়া হবে এবং পেঁয়াজ তোলার সময় আমদানী বন্ধ করা হবে যাতে চাষীরা ভালো দাম পায়।

বৈদেশিক কর্ম সংস্থানের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, বৈদেশিক রেমিটেন্স এখন দেশের প্রধান আয়ের খাত। দেশে ৪০ লাখ লোক গার্মেন্টেসে কাজ করে আয় করে বার্ষিক ১০বিলিয়ন ডলার। কিন্ত, দিনে দিনে এই সেক্টরের আয় কমে আসছে। তাই দেশের উন্নয়নে জনশক্তি রফতানীর উপর জোর দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, রংপুর অঞ্চল সব দিক থেকে পিছিয়ে। বিদেশ গমনের ক্ষেত্রে রংপুর পিছিয়ে। এই পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির বিদেশ গমন সহজীকরণ করতে হবে। এজেন্সি প্রদানের ক্ষেত্রে রংপুর অঞ্চলের জন্য শর্ত শিথিল করতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, প্রবাসীরা বিদেশে যাতায়াতের ক্ষেত্রে নানা প্রকার হয়রানীর শিকার হয়। যাতে কোন প্রাবসী হয়রাণীর শিকার না হয় সে বিষয়ে আন্তরিক হওয়ার জন্য তিনি সরকারী কর্মকর্তাদের আচরণ ও দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করার তাগিদ দেন। সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব কাজী আবেদ হোসেন, রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, বিভাগীয় কমিশণার তরিকুল ইসলাম, ডিআইজি আব্দুল আলীম মাহমুদ, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান প্রমূখ।

জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী জিলা স্কুল মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল পরিদর্শনে যান। সেখানে রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নব-নির্বাচিত নেতৃবৃন্দের সঙ্গে জাতির জনকের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এসময় দলের নেতা-কর্মীদের সকল বিভেদ ভুলে সু-সংগঠিত হয়ে এলাকার উন্নয়নসহ ত্যাগী নেতাদের প্রতি বিনয়ী হবার আহ্বান জানান।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।