ব্রেকিং নিউজ

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে থমথমে পরিস্থিতি আসামে

news-details
আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভে সংঘর্ষে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে আসামে। পরিস্থিতি পুরোপুরি স্বাভাবিক না হলেও শনিবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত শিথিল করা হয়েছে কারফিউ। তবে বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট সেবা। শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গ, আসাম ও মেঘালয়ের পাশাপাশি বিক্ষোভ হয়েছে দিল্লি, হায়দরাবাদ, কেরেলা ও অরুণাচল প্রদেশে।

সময়ের সঙ্গে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ বিক্ষোভ রূপ নিচ্ছে সহিংসতায়। ঘটছে প্রাণহানি, পুড়ছে বাড়ি-ঘর। সড়কে ব্যারিক্যাড ও অবরুদ্ধ রেলপথ।

সবচেয়ে খারাপ অবস্থা পশ্চিমবঙ্গে। হাওড়ার উলুবেড়িয়া, মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা, বহরমপুরসহ নানা এলাকায় সড়ক-রেলপথ অবরোধ করে হয়েছে প্রতিবাদ। বন্ধ হাওড়া-খড়গপুর ও শিয়ালদহ-লালগোলা ট্রেন চলাচল। কলকাতার পার্ক সার্কাস সেভেন্ট পয়েন্টে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করেছে বিক্ষুব্ধরা।

আসামে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনীর ২৬ ইউনিট। বৃহস্পতিবার গুয়াহাটিতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ২ জন নিহত হলে, বিক্ষোভ ভয়াবহ রূপ নেয়। ১০ জেলায় বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্টারনেট সেবা।

মেঘালয়ে বিক্ষোভকারীদের দমনে টিয়ারশেল ছোঁড়ে পুলিশ। লাঠিচার্জে আহত হন অনেকে। পুলিশকে লক্ষ্য করেও ইট-পাথর ছুড়েছেন প্রতিবাদকারীরা। ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে কারফিউ জারি করা হয়েছে রাজধানী শিলংয়ে। বন্ধ ইন্টারনেট ও মোবাইল ফোন।

বিক্ষোভ চলছে রাজধানী দিল্লিসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহরে। পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে সড়কে হাজারো মানুষ। অবিলম্বে বিল বাতিলের দাবি তাদের।

এদিকে, অস্থিতিশীল রাজনৈতিক পরিস্থিতে নির্ধারিত ভারত সফর বাতিল করেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। বিক্ষোভের মদ্যেই বুধবার রাজ্যসভায় অনুমোদন পায় নাগরিকত্ব বিল। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে এটি আইনে পরিণত হয়।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।