ব্রেকিং নিউজ

নারীর প্রজনন স্বাস্থ্য সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে

news-details
স্বাস্থ্য

আমাদের প্রতিবেদক :

প্রজনন স্বাস্থ্য সুবিধা একজন নারীর সাংবিধানিক অধিকার। এই অধিকার নিশ্চিত করতে সরকার ও বেসরকারী পর্যায়ে তৎপরতা বাড়াতে হবে। মানবিক মর্যদা সম্পন্ন দেশ ও জাতি গঠনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সারাদেশে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সুবিধা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন বক্তারা।

রবিবার (১৫ ডিসেম্বর) ‘মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা উন্নয়নে নীতিসমূহ পযালোচনা ও স্কুল পর্যায় ওয়াশ সুবিধা উন্নতকরণে বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ আহ্বান জানান।

সকালে ডেইলি স্টার ভবনের আজিমুর রহমান অডিটোরিয়ামে এই সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) ও মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা (এমএইচএম) প্লাটফরম। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপিএস’র নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া কবীর। প্রধান অতিথি ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মহাপরিচালক আ ক ম মহিউল ইসলাম। মূল বক্তব্য উত্থাপন করেন গবেষক মনজুম নাহার। আলোচনায় অংশ নেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শেখ মোমেনা মনি, ইউএনএফপিএ’র ড. রাহাত আরা নূর, প্রজনন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. হালিদা হানুম আক্তার, কেয়ার-এর ড. ইখতিয়ার উদ্দিন খন্দকার, ইউনিসেফ’র ইকবাল হোসাইন, ইউএনএইডস’র ড. সাইমা খান, পরিবার পরিকল্পনা সমিতির তানভীর আহমেদ, ডরপ-এর দিদার উদ্দিন, স্কুলছাত্রী নাবিলা ফরিদা রহমান প্রমূখ।

আ ক ম মহিউল ইসলাম বলেন, দেশের ৯৫ ভাগ নারী অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে মাসিককালীন সময় পার করে। ফলে তারা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়েন। এর পিছনে অনেক কারণ করেছে। বিশেষ করে স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার ব্যয় বহুল। তাদের মধ্যে সচেতনতা ও সুশিক্ষার অভাবও রয়েছে। তাই ব্যাপক সচেতনতা গড়ে তোলা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

শেখ মোমেনা মনি বলেন, সামাজিক নিয়মবিধি, বিশ্বাস বা রীতিনীতি এবং প্রচলিত ধ্যান-ধারণা মাসিকের সময় নারী ও মেয়েদের সামাজিক, অর্থনৈতিক অংশগ্রহণকে সীমিত করে তোলাসহ নারীর সামগ্রিক ক্ষমতায়নকে বাধাগ্রস্থ করছে। ফলে নারীরা তাদের মাসিকের সময় শারীরিক, মানসিক ও সামাজিক বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়। এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে প্রত্যেকটি স্কুল-কলেজে উপবৃত্তির সঙ্গে মাসিক ব্যবস্থাপনার জন্য ফ্রি স্যানেটারি ন্যাপকিন সরবরাহের প্রস্তাব করেন তিনি।

রোকেয়া কবীর বলেন, ‘মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা’ স্বাস্থ্য অধিকারের একটি অংশ। সেইসাথে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু পরিষ্কার পানি, উপযুক্ত স্যানিটেশন সুবিধা এবং আনুষঙ্গিক স্বাস্থ্যবান্ধব সুযোগ সুবিধায় সীমিত প্রবেশাধিকার নারীদের জন্য তাদের মাসিক স্বাস্থ্যের ব্যবস্থাপনাকে কঠিন করে তোলে। তাই এ সম্পর্কিত সঠিক তথ্যের সহজলভ্যতা নিশ্চিত ও মাসিকের সময় অনুকূল সেবামূলক পরিবেশ তৈরি করার জন্য ওয়াশ ব্যবস্থার জন্য বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধি করতে হবে।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।