দুর্নীতির অভিযোগে ইমেলদা মার্কোসকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ

news-details
রাজনীতি

দুর্নীতির অভিযোগে ফিলিপাইনের একটি আদালত সে দেশের প্রাক্তন ফার্স্ট লেডি ইমেলদা মার্কোসকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে। বিবিসি জানিয়েছে, শুক্রবার দুর্নীতির সাতটি অভিযোগে ৮৯ বছরের ইমেলদাকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত।

দুর্নীতির অভিযোগে ফিলিপাইনের একটি আদালত সে দেশের প্রাক্তন ফার্স্ট লেডি ইমেলদা মার্কোসকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে। বিবিসি জানিয়েছে, শুক্রবার দুর্নীতির সাতটি অভিযোগে ৮৯ বছরের ইমেলদাকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। এসব অভিযোগের প্রত্যেকটিতে তাকে আলাদা আলাদাভাবে ৬ থেকে ১১ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

ইমেলদা মার্কোস ফিলিপাইনের প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ফার্দিনান্দ মার্কোসের স্ত্রী। স্বামীর শাসনামলে অগাধ ধনসম্পদের মালিক হয়ে তা দিয়ে এক হাজার জোড়া জুতা, গহনা ও অন্যান্য বিলাসবহুল সামগ্রী কিনে বিশ্বব্যাপী সংবাদ মাধ্যমের শিরোনাম হয়েছিলেন তিনি।

তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির যে সব অভিযোগ আনা হয়েছে সেগুলো  ’৭০ ও ’৮০ –এর দশকে ফার্দিনান্দ প্রেসিডেন্ট থাকাকালে। সে সময় সুইসভিত্তিক এনজিও’র সঙ্গে অবৈধ আর্থিক চুক্তির অভিযোগে ইমেলদার বিরুদ্ধে ওইসব মামলা হয়।

রায় ঘোষণাকালে ইমেলদা আদালতে ছিলেন না। এজন্য আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। দুর্নীতিবিরোধী আদালতে ২৭ বছর ধরে এসব মামলা চলছে।

তবে আদালত আদেশ দিলেও এখনই গ্রেপ্তার হচ্ছেন না ইমেলদা। তিনি বর্তমানে ফিলিপাইনের পালামেন্টে প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য। এছাড়া আগামী বছর গভর্নরের আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে নিবন্ধনও করেছেন ইমেলদা।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে সরকারি কৌসুলি রাইয়ান কিলালা বলেছেন,  দুর্নীতিবিরোধী আদালতের গ্রেপ্তার আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন ইমেলদা। তিনি জামিনের জন্যও আবেদন করতে পারবেন।

১৯৮৬ সালে সেনা সমর্থিত এক গণঅভ্যুত্থানে ফার্দিনান্দ ক্ষমতাচ্যুত হলে এ দম্পতির দুর্নীতি নিয়ে একের পর এক অভিযোগ পাওয়া যায়। বিদেশে নির্বাসনে থাকা অবস্থায় ১৯৮৯ সালে ফার্দিনান্দের মৃত্যু হয়।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

If you want to comment please Login. If you are not registered then please Register First