ব্রেকিং নিউজ

আবারো ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের নিয়ন্ত্রণে আওয়ামী লীগ

news-details
জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম ও শেখ ফজলে নূর তাপস বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। শনিবার ভোট গ্রহণ শেষে রাতে এ ফল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

১১৫০ কেন্দ্রের বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফলে তাপস পেয়েছেন ৪ লাখ ২৪ হাজার ৫৯৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ৫১২ ভোট।

এই সিটিতে মেয়র প্রার্থী ছিলেন মোট ৭ জন। অন্যদের মধ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী আবদুর রহমান হাতপাখা প্রতীকে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৫২৫ভোট। জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৫৯৩ ভোট। গণফ্রন্টের প্রার্থী আবদুস সামাদ সুজন মাছ প্রতীকে ১২ হাজার ৬৮৭ ভোট পেয়েছেন। বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আক্তারুজ্জামান ওর‌ফে আয়াতুল্লাহ ডাব প্রতীকে ২ হাজার ৪২১টি ভোট পেয়েছেন। আর ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. বাহারা‌নে সুলতান বাহার আম প্রতীকে পেয়েছেন ৩ হাজার ১৫৫ ভোট।

অন্যদিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম ১ লাখ ৮৩ হাজার ৫০ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন। ১৩১৮ কেন্দ্রের বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফলে আতিক পেয়েছেন ৪ লাখ ৪৭ হাজার ২১১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আওয়াল ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ লাখ ৬৪ হাজার ১৬১ ভোট।

বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সাবেক সভাপতি আতিকুল। ২০১৩-১৪ মেয়াদে এ দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এবার দ্বিতীয় বারের মতো নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন বিশিষ্ট এ ব্যবসায়ী। এর আগে ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন উপ-নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন আতিকুল।

এই সিটিতে মেয়র পদে মেয়র পদে অন্য প্রার্থীদের মধ্যে কাস্তে প্রতীকে সিপিবির আহম্মেদ সাজেদুল হক রুবেল ১৫ হাজার ১২২ ভোট, হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলনের শেখ ফজলে বারী মাসউদ ২৮ হাজার ২০০ ভোট, আম প্রতীকে এনপিপির আনিসুর রহমান দেওয়ান ৩ হাজার ৮৫৩ ভোট এবং বাঘ প্রতীকে পিডিপির শাহীন খান ২ হাজার ১১১ ভোট পেয়েছেন।

এর আগে বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। এদিন সকাল ৮টা থেকে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে।

নতুন পদ্ধতি এভিএম-এ ভোট দেয়ার বিষয়ে নগরবাসীর মধ্যে এক ধরনের কৌতুহল কাজ করেছে। সকালের দিকে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোট কেন্দ্রে উপস্থিতি বাড়তে থাকে।

ঢাকা উত্তরে মোট ভোটকেন্দ্রে ১ হাজার ৩১৮। মোট সাধারণ ওয়ার্ড ৫৪ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড সংখ্যা ১৮টি। মোট ভোটার ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৫৬৭ এবং নারী ১৪ লাখ ৬০ হাজার ৭০৬ জন।

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ভোটার ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ১২ লাখ ৯৩ হাজার ৪৪১ এবং নারী ১১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৫৩। ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১ হাজার ১৫০। সাধারণ ওয়ার্ড ৭৫ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড ২৫টি।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।