সংলাপে সম্মতি ও খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি সাংঘর্ষিক : ফখরুল

news-details

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে সংলাপ ও নির্বাচন কখনোই ফলপ্রসূ হবে না বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সংলাপে রাজি.......

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে সংলাপ ও নির্বাচন কখনোই ফলপ্রসূ হবে না বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সংলাপে রাজি হওয়া ও খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি করা সাংঘর্ষিক বলেও মনে করেন তিনি।

আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত এক মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।
সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় ফরমায়েশি রায়ে সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।
সরকারের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, 'বেগম জিয়াকে কারাগারে রেখে সংলাপ ও নির্বাচন কখনো ফলপ্রসূ হবে না। এজন্য আমরা বলেছি, গণতন্ত্রের পথে ফিরিয়ে আসুন। দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরি করুন।'
তিনি আরও বলেন, 'একদিকে সরকার সংলাপে রাজি হয়েছে, অপরদিকে খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি করেছে। এই দুইটা সাংঘর্ষিক। এটা কখনোই গণতান্ত্রিক আচরণ নয়। এতে সংলাপের আন্তরিকতা বহন করে না।'
মির্জা ফখরুল বলেন, '‘নির্বাচন দিচ্ছেন? কিন্তু আপনারা হেলিকপ্টারের করে জনগণের কাছে যাচ্ছেন। আর আমাদের নেত্রী কারাগারে এবং আমরা পালিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। আমাদের কর্মীরা কোথাও দাঁড়াতে পারছে না।'
খালেদা জিয়ার সাজার বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, 'বেগম জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে এবং আসন্ন নির্বাচনে যাতে তিনি অংশগ্রহণ করতে না পারেন, সেজন্য একটি মিথ্যা মামলায় তাকে সাজা দিয়ে কারাগারে আটক করে রেখেছে। এমনকি তিনি জামিন পেলেও তাকে জামিন দেওয়া হয়নি। একটার পর একটা মিথ্যা মামলা দিয়ে বেগম জিয়াকে কারাগারে আটক করে রাখা হচ্ছে।'
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, 'বেগম জিয়া ও বিরোধী দল ছাড়া আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে না। তাই মুক্ত বেগম জিয়াকে নিয়ে আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চাই।'
মানববন্ধনে বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, বরকত উল্লাহ বুলু, মো. শাহজাহান, বেগম সেলিমা রহমান, রুহুল আলম চৌধুরী, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, এজেডএম জাহিদ হোসেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আবুল খায়ের ভূইয়া, আব্দুস সালাম,  যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, এমরান সালেহ প্রিন্স, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপনসহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।