ব্রেকিং নিউজ

জ্বলছে দিল্লি: সাত নিহত, ১৪৪ ধারা জারি

news-details
আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের প্রথম দিন থেকেই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) বিরোধী বিক্ষোভের আগুনে পুড়ছে রাজধানী দিল্লি। ওই বিক্ষোভে মঙ্গলবার নিহতের সংখ্যা বেড়ে সাতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দিল্লির বিভিন্ন স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও শতাধিক মানুষ।

জানা যায়, নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার সকালেও নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে দিল্লিতে। এ দিন সকালে মৌজপুর এবং ব্রহ্মপুরীতে ফের ওই আইনের সমর্থক গোষ্ঠী ও বিরোধিতাকারীদের মধ্যে ফের সংঘর্ষ বাধে। এসময় একে অপরকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়তে থাকে। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেলও। পরে পুলিশ গিয়ে সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সংঘর্ষের সূত্রপাত সোমবার বিকেল থেকেই। ওইদিন সিএএ বিরোধীদের সঙ্গে ভয়াবহ সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে এই আইনের সমর্থকরা। এ সময়ের দু পক্ষের সংঘর্ষে নিহত হয় সাতজন। এদের মধ্যে একজন পুলিশ কনস্টেবল, বাকিরা সাধারণ নাগরিক। এর আগে সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত হওয়ার খবর মিলেছিলো। পুলিশসহ আহত হয়েছে আরও শতাধিক মানুষ।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের ঐতিহাসিক ভারত সফরের মধ্যেই এভাবে উত্তপ্ত হয়ে পড়েছে গোটা দিল্লি। পরিস্থিতি এতটাই অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে যে জরুরি অবস্থা জারি করতে বাধ্য হয়েছে দিল্লি প্রশাসন। দিল্লির কমপক্ষে ১০টি এলাকায় রেড অ্যালার্ড বা ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে দিল্লির জাফরাবাদ, মৌজপুর-বাবরপুর, গোকুলপুরী, জোহরি এনক্লেভ এবং শিববিহার মেট্রো স্টেশন।

এই অবস্থায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দিল্লির ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী মনিষ সিসোদিয়া মঙ্গলবার উত্তরপূর্ব দিল্লির সব সরকারি স্কুল এবং বেসরকারি স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছেন। ওই অঞ্চল সংলগ্ন বিভিন্ন স্থানে বাতিল করা হয়েছে বোর্ডের মাধ্যমিক পরীক্ষাও।

সরকারি একটি সূত্রের দাবি, ট্রাম্পের উপস্থিতিতে পরিকল্পনা মতোই এই ধরনের সহিংসতা ঘটানো হয়েছে। যদিও আরও উচ্চপর্যায়ের তদন্ত করে এই ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন এক পদস্থ অফিসার।

এদিকে দিল্লি পরিস্থিতি সামাল দিতে মঙ্গলবার দুপুরে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বৈঠকে বিজেপি ও আম আদমি পার্টি ছাড়াও অন্যান্য দলের নেতারাও উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস।

এর আগে দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে সোমবার রাতেই দিল্লির পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সফরকে কেন্দ্র করে যে কোনও ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে যত শীঘ্র সম্ভব পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

সোমবার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল হিংসাবিধ্বস্ত অঞ্চলগুলির বিধায়ক এবং কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি জরুরি বৈঠকে বসছেন। পরে তিনি এ নিয়ে টুইটবার্তায় বলেন, ‘দিল্লির কয়েকটি অঞ্চলের বর্তমান থমথমে পরিস্থিতি নিয়ে আমি খুব উদ্বিগ্ন। শহরে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্যে আমাদের সবারই একসঙ্গে চেষ্টা করা উচিত। আমি আরও একবার সকলের প্রতি আবেদন করছি, দয়া করে হিংসা ছড়ানো থেকে বিরত থাকুন।’

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।