ব্রেকিং নিউজ

প্রতিটি দেশই করোনাভাইরাসের উচ্চঝুঁকিতে  

news-details
স্বাস্থ্য

আমাদের প্রতিবেদক : 

চীনের হুবেই প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ এর সংক্রমণের উচ্চঝুঁকিতে আছে প্রতিটি দেশ। চীনে আক্রান্তের সংখ্যা এলেও ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালি এবং জাপানে প্রতিদিনই বাড়ছে।

শুক্রবার (৬ মার্চ) রাজধানীর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আইইডিসিআর ভবনে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ ব্রিফিংয়ে এমনটাই জানান প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। 

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৫টি দেশ- বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনা, জিব্রালটার, হাঙ্গেরি স্লোভিনিয়া এবং ফিলিস্তিন আক্রান্ত হওয়ায় মোট আক্রান্ত দেশের সংখ্যা দাঁড়াল ৮৬টিতে।

সব মিলিয়ে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৯৫ হাজার ৩৩৩ জন। এর মধ্যে চীনেই আক্রান্ত ৮০ হাজার ৫৬৫ জন। মোট নিহত ৩ হাজার ২৮২ জনের মধ্যে চীনেই নিহত হয়েছে ৩ হাজার ১৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মোট নিহত ৮৪ জন। এর মধ্যে চীনে নিহত ৩১ জন।

মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাস আক্রান্ত বাংলাদেশি ৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি গেছেন, বাকি ২ জন এখনও আছেন, তবে এদের মধ্যে একজন আছে আইসিইউতে কোয়ারাইন্টনে। এদিকে বাংলাদেশে ৩ জন এখনও আইসোলেশন রয়েছে।

ডা. ফ্লোরা বলেন, গত বুধবার মোংলার গভীর সমুদ্র বন্দরে আসা ইন্দোনেশিয়ান একটি জাহাজ অবস্থান করছে। জাহাজটি সিঙ্গাপুর হয়ে বাংলাদেশে নোঙ্গর করে। এখানে তিন জনের মধ্যে জ্বর দেখা দিলেও দু’জন ইতিমধ্যে সুস্থ্য হয়েছে আর বাকিদের জ্বর এখনো আছে। তাদের নমুনা এখনো সংগ্রহ করা হয়নি এবং তারা তিন জনই আইসোলেশনে আছে। তবে জাহাজটি বহিঃনোঙ্গরে থাকায় ভয়ের কিছু নেই।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মৃত্যুর হার কম। আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকতে হবে। গুজব বা অতি উৎসাহমূলক কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ জানান তিনি।

ফ্লোরা বলেন, এই জীবাণুর কোনো প্রতিষেধক আবিস্কৃত হয়নি। তাই গুজব থেকে রোগী শনাক্ত বা চিকিৎসা হয়েছে বা করা যাবে, সবাইকে সতর্ক থাকতে আহ্বান জানান।

তিনি জানান, প্রতিটি জেলায় র‍্যাপিড রেসপন্স টিম গঠন করা হয়েছে। যখন কাউকে সন্দেহভাজন পাওয়া যায়, তখন সেখানকার টিম গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করবে।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেন, নৌ, স্থল এবং রেলপথে হ্যান্ড হেল্ড মেশিন দিয়ে শারীরিক তাপমাত্রা যাচাই চলছে। শুধু বিমানবন্দরে থার্মাল স্কেনার আছে। তবে, এখন শুধু ঢাকার বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্যানার ভালো আছে। বাকিগুলোতে শিগগিরই নতুন মেশিন আসছে।

তিনি জানান, কুয়েত যাওয়ার জন্য কোনো সার্টিফিকেটের প্রয়োজন হবে না। কুয়েত সরকার এ বিষয়ে কোনো সমস্যা করবে না।

স্যোশাল মিডিয়ার গুজব বিসয়ে তিনি বলেন, গুজবে কান দেয়া ঠিক নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ হচ্ছে। সব কিছুকে বিশ্বাস না করার আহ্বান জানান তিনি।

 
 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।