ব্রেকিং নিউজ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের রেকর্ড সংগ্রহ

news-details
খেলাধুলা

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রথম ম্যাচেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দলীয় সর্বোচ্চ রানের দিক দিয়ে নিজেদের ছাড়িয়ে গেল টাইগাররা। এর আগে গেল বছর চট্টগ্রামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৭৫ রানই ছিল দলীয় সর্বোচ্চ। আর মিরপুর শের-ই-বাংলায় টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচেই রেকর্ড গড়ল টিম টাইগার্স। লিটন দাস এবং সৌম্য সরকারের অর্ধশতকে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ২০০ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। এটি টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের তৃতীয় ২শ দলীয় সংগ্রহ।

ব্যাট করতে নেমেই চার-ছকা হাঁকিয়ে শুরু করেছেন তামিম-লিটন। যাতে মাত্র ১০ ওভারেই দলীয় স্কোরকে ৯০ পার করেন তামিম-লিটন। তামিম ইকবাল তিন চার ও দুই ছক্কায় ৪১ রানে আউট হলেও ফিফটি তুলে নিয়েছেন মারকুটে লিটন দাস। তবে সিকান্দার রাজার এলবির ফাঁদে সাজঘরে ফেরেন লিটন। ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৯ রান তুলেন লিটন।

লিটন ফেরার পর উইকেটে আসেন মুশফিকুর রহিম। সৌম্য সরকারের সঙ্গে বড় জুটির আভাস দিচ্ছিলেন মি. ডিপেন্ডেবল। ব্যাট হাতে মাত্র ৮ বলেই ২ ছক্কায় খেলেন ১৭ রানের ইনিংস। তবে ইনিংসের ১৬তম ওভারে দলীয় ১৪৬ রানে ফেরেন মুশফিকুর রহিম। এরপর সৌম্য-মাহমুদউল্লাহর ৫৪ রানের জুটিতে ২০ ওভারে দলীয় স্কোর ২০০ রানে স্পর্শ করে। ৬২ রানে সৌম্য ও ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন মাহমুদউল্লাহ।


টেস্ট দিয়ে শুরু হয় বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ। ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে সিরিজের একমাত্র টেস্টটি জিতে নেয় বাংলাদেশ। এরপর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বাধীন দলটি। যদি টি-২০ সিরিজেও জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করতে পারে বাংলাদেশ, তবে পুরো সফরেই প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিতে পারবে টাইগাররা। সিরিজ শুরুর আগে এমনই লক্ষ্য বাংলাদেশের।

লক্ষ্য পূরণের জন্য জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করাটা বাধ্যতামূলক। কিন্তু কাজটি সহজ হবে না বলে মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। কারন টি-২০ ফরম্যাটে ভালো ক্রিকেট খেলে থাকে জিম্বাবুয়ে।

সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘প্রত্যেকটি ম্যাচই চ্যালেঞ্জিং। কোন কিছুই সহজভাবে নেয়ার কোন অবকাশ নেই।’

অন্যদিকে জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক শন উইলিয়ামস জানিয়েছেন, টি-টোয়েন্টিতে সহজে ছাড় দেবে না তার দল। তবে তামিমকে নিয়ে বেশ চিন্তিত তিনি। উইলিয়ামস বলেন, ‘ম্যাচ জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ নিশ্চিত। দুটি বলই টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। তামিমকে আউট করতে পারলে যে কোনো কিছু হবে।’

বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি একাদশ:

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহীম, আফিফ হোসাইন, সৌম্য সরকার, সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, মোস্তাফিজুর রহমান, শফিউল ইসলাম।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।