ব্রেকিং নিউজ

এরশাদ জাতির জনককে অত্যন্ত শ্রদ্ধা করতেন : জিএম কাদের

news-details
রাজনীতি

আমাদের প্রতিবেদক

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের (জিএম কাদের) এমপি বলেছেন, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সব সময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে অত্যন্ত শ্রদ্ধা করতেন। পল্লীবন্ধু বিভিন্ন সময়ে শেখ মুজিবুর রহমানকে জাতির পিতা হিসেবে সংবিধানে স্বীকৃতি দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু যেকোনো কারণে সেটি করতে পারেননি।

জিএম কাদের বলেন, প্রথম কোন রাষ্ট্রপতি হিসেবে পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের মাজার জিয়ারত করেছেন। আমাদের নেতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এবং জাতীয় পার্টি সব সময়ই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে জাতির পিতা হিসেবে অত্যন্ত শ্রদ্ধা করেছেন।
 
আজ বেলা ১১টায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে গণমাধ্যমের সাথে এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, প্রতিটি জাতির জীবনে একজন ব্যক্তিত্ব থাকেন যার ব্যক্তিত্ব এবং কর্মময় জীবন জাতির সামনে অনুপ্রেরণার দৃষ্টান্ত হয়ে থাকে।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তেমন একজন আদর্শ পুরুষ। তাঁর জীবন নিয়ে চর্চা করলেই জাতি বিপদে-আপদে এবং বিভিন্ন পরিবেশে এগিয়ে যেতে নির্দেশনা পাবে।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা এবং বিশ্লেষণ হবে এতে জাতি দিক নির্দেশনা পাবে।

বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে আলোচনায় আগামি প্রজন্ম দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের জন্য কাজ করতে অনুপ্রেরণা লাভ করবে। ভবিষ্যতে বঙ্গবন্ধুকে আমরা আদর্শ মেনে সামনে এগিয়ে যাবো।

এর আগে জাতীয় পার্টির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি। এসময় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর মাগফিরাত এবং দেশের শান্তি-সম্বৃদ্ধি কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান, কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু, সাহিদুর রহমান টেপা, সৈয়দ আব্দুল মান্নান, এস.এম. ফয়সল চিশতী, আজম খান, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, লেঃজেঃ মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী এমপি (অব.), এ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, মেজর সোহেল রানা এমপি (অব.), আলমগীর সিকদার লোটন।

আরও উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা-হাসিবুল ইসলাম জয়, রওশন আরা মান্নান এমপি, ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা আল মাহমুদ, আহসান আদেলুর রহমান এমপি, মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, শফিকুল ইসলাম শফিক, শফিউল্লাহ শফি, যুগ্ম মহাসচিব- ফখরুল আহসান শাহজাদা, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য- মোঃ হেলাল উদ্দিন, মাখন সরকার, এম.এ. রাজ্জাক খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসহাক ভূঁইয়া, মাহমুদ আলম, দেলোয়ার হোসেন খান মিলন, আনোয়ার হোসেন তোতা, নুরুল হক নুরু, কেন্দ্রীয় নেতা জহিরুল ইসলাম মিন্টু, আবুল কাশেম, জাতীয় ছাত্র সমাজের সভাপতি মোঃ ইব্রাহীম খান জুয়েল, সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহ ইমরান রিপন, মারুফ ইসলাম প্রিন্স, দপ্তর সম্পাদক মোঃ বিপ্লব গাজী।


 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।