ব্রেকিং নিউজ

সুন্দরবনে কথিত বন্দুকযুদ্ধ, বাহিনী প্রধান ফারুক নিহত

news-details
দেশজুড়ে

বাগেরহাট প্রতিনিধি    

সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে বনদস্যু বাহিনীর প্রধান ফারুক মোড়ল (৩৮) নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে র‍্যাব।

আজ মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলাধীন চাঁদপাই রেঞ্জের কোদালিয়া খাল এলাকায় এ 'বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা ঘটে।

নিহত ফারুক খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলার কলাবগী গ্রামের আকবর মোড়লের ছেলে। র‍্যাবের দাবি, তিনি  সুন্দরবনে একটি বনদস্যু বাহিনী পরিচালনা করতেন।

র‌্যাব খুলনা-৬ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল রওশনুল ফিরোজের ভাষ্যমতে, সুন্দরবনে একদল দস্যু কয়েকজন জেলেকে জিম্মি করে রেখেছে- এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার রাতে সেখানে অভিযান চালানো হয়। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে র‌্যাবের দলটি কোদালিয়া খাল এলাকায় পৌঁছালে দস্যুরা বনের ভেতর থেকে র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। থেমে থেমে প্রায় ৪০ মিনিট ধরে গোলাগুলির একপর্যায়ে দস্যুরা পিছু হটে। পরে বন তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বাহিনী প্রধান ফারুককে আটক করা হয়। তাকে চিকিৎসার জন্য মোংলা উপজেলা স্বাস্থা কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

রওশনুল ফিরোজ বলেন, 'বন তল্লাশিকালে দস্যুদের ব্যবহৃত একটি বন্দুক, ১১টি কাটুজ, একটি রামদা, একটি নৌকা এবং চাল-ডালসহ বেশকিছু রেশনিং সামগ্রী উদ্ধার করা হয়।' বন্দুকযুদ্ধে র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

রওশনুল ফিরোজ আরো বলেন, 'ফারুক কিছুদিন আগে পাঁচ থেকে ছয়জন সদস্য নিয়ে সুন্দরবনে নিজের নামে বাহিনী গড়ে তোলেন। জেলেদের ভাষ্য অনুযায়ী সুন্দরবনে তৎপরতা চালিয়ে আসছিল বাহিনীটি।'

মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মলয় মল্লিক সাংবাদিকদের বলেন, 'গুলিবিব্ধ অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়। তবে আনার আগেই অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।'   

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।