বেনাপোল সীমান্ত পারের কথা বলে নারীকে ধর্ষণ

news-details
দেশজুড়ে

।। যশোর প্রতিনিধি ।। 

যশোরের বেনাপোল সীমান্ত পথে ভারতে যাওয়ার পথে দুই নারী গণধর্ষণের শিকারের ঘটনায় জড়িত ছয়জনকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার সন্ধ্যায় বেনাপোলের ভারতীয় সীমান্তগ্রাম পুটখালী এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, আটকরা হলেন- বেনাপোল পোর্টথানার পুটখালী গ্রামের আলমের ছেলে সোহেল (৩০), আজগারের ছেলে আরিফ (২৯), আব্দুল খালেকের ছেলে আব্দুল্লাহ (২৭), মোর্শেদের ছেলে শিমুল (৩৫), আইয়ুব বিশ্বাসের ছেলে  প্লাবন (২৮), শামছুর কসাইয়ের ছেলে মোরশেদ (৩৫) ও রাফিউল (৩২)। এদের মধ্যে রাফিউল পলাতক থাকায় তার বাবা ছাদেককে আটক করা হয়েছে।

পুটখালী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহসাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান জদু বলেন, ঢাকা থেকে দুই নারী চিকিৎসার জন্য চোরাইপথে ভারতে যাওয়ার জন্য বেনাপোলের পুটখালী আসেন। শনিবার রাতে একদল বখাটে তাদের ভারতে পার করে দেবে বলে পুটখালী চরের মাঠ এলাকায় নিয়ে যায়। পরে ১০ থেকে ১২ জন তাদের আটকে রেখে গণধর্ষণ করেন। বিষয়টি এলাকাবাসী জানতে পেরে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ও এলাকাবাসী রোববার দিনভর অভিযান চালিয়ে তাদের মধ্য থেকে ছয়জনকে ভারত সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে আটক করে।

ধর্ষণের শিকার দুই নারী বর্তমানে পুলিশের হেফাজতে আছেন বলে নিশ্চিত করেন বেনাপোল পোর্টথানার ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিম।

তিনি বলেন, ধর্ষণের শিকার দুই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সোমবার (১১ মার্চ) যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে। নির্যাতিতাদের সঙ্গে কথা বলে ধর্ষণের বিষয়টি প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে।


 

You can share this post on
Facebook

0 Comments

If you want to comment please Login. If you are not registered then please Register First