সাভারে কলেজ শিক্ষার্থী খুন

news-details
দেশজুড়ে

।। সাভার (ঢাকা)   প্রতিনিধি ।। 

সাভার পৌর এলাকার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী এক শিক্ষার্থীকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার রাতে দক্ষিণ রাজাশন মহল্লার সার্ড স্কুল মোড় এ ঘটনাটি ঘটে। নিহতের নাম নাঈম হাসান (২০)। সে ওই মহল্লার মনির হোসেনের ছেলে ও স্থানীয় ট্রাস্ট কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন।  

এ ঘটনার সাথে জড়িত মূল হোতাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে সাভার মডেল থানা পুলিশ। নিহতের মৃতদেহ সাভার এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতার্ল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। নিহতের পরিবার পক্ষ থেকে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত নামা ৪-৫ জনকে আসামি করে একটি হত্যার অভিযোগ দায়ের হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে, মূল হত্যাকারী হিসেবে অভিযুক্ত দক্ষিণ রাজাশন মহল্লার মৃত আব্দুল আলীর ছেলে শাকিল (২০), একই মহল্লার আহসান উল্লাহর ছেলে মিলন (২০) ও হযরত আলীর ছেলে রিফাত (২৪)। 

নিহতের বাবা মনির হোসেন বলেন, আমাদের মহল্লায় দুই পক্ষের মধ্যে চলা সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে খুন হয় আমার ছেলে। আমার ছেলে নাঈম ঝগড়া মিটাতে গেলে তাকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমি নিজে বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছি।

সাভার মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রুবেল ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রাতে নাঈমের মৃতদেহ এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তাতক্ষনিক অভিযান চালিয়ে হত্যার মূল হোতা হিসেবে অভিযুক্তসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।  

প্রাথমিক ভাবে জানা যায়, মহল্লায় সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্ব ও আধিপত্ত বিস্তারকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রাতে স্থানীয় মিলন ও শাকিল গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় সংঘর্ষ থামাতে যান নাঈম। নঈম কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই শাকিল তাকে ছুরিকাঘাত করে। পরে স্থানীয়রা তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে চিকিৎসাদিন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।