পাবনায় তিন পুলিশ হত্যায় আট চরমপন্থীর যাবজ্জীবন

news-details
দেশজুড়ে

।। রাজশাহী প্রতিনিধি ।। 

পাবনার বেড়া উপজেলার চাঞ্চল্যকর তিন পুলিশ হত্যা মামলায় আট চরমপন্থীর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছন আদালত। পাশাপাশি তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে আরও এক বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড।

এছাড়া এ মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিন আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। বুধবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের বিচারক অনুপ কুমার এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালাচর গ্রামের জহুরুল ইসলাম, রাজধরদিয়া গ্রামের নিজাম ফকির, ধারাই গ্রামের রফিক ওরফে জৈটা রফিক, পশ্চিম কাছাদিয়া গ্রামের আইয়ুব আলী ও শুকুর আলী সরদার, পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার চাঁদপুর গ্রামের হাশেম ওরফে খোকন ওরফে বাচ্চু, সুজানগরের পাকুড়িয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম ওরফে কানা আলম এবং রাজবাড়ীর মাইছেঘাটার জোসন মোল্লা। তারা সবাই নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সংগঠন পূর্ববাংলা সর্বহারা পার্টির সদস্য।

রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু জানান, মামলায় মোট ১৬ জন আসামি ছিলেন। এর মধ্যে আটজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদ- দিয়েছেন আদালত। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিন আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। বাকিরা বিভিন্ন সময় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের মধ্যে জহুরুল ইসলাম ও হাশেম ওরফে খোকন পলাতক।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ২০ জুলাই রাতে বেড়া উপজেলার ঢালাচর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক কফিল উদ্দিন (৫০), নায়েক ওয়াহেদ আলী (৩৫) ও কনস্টেবল শফিকুল ইসলামকে (৩৫) গুলি করে হত্যা করে চরমপন্থিরা। এ ঘটনায় বেড়া থানায় একটি হত্যা মামরঅ হয়। মামলায় ১৬ জনকে অভিযুক্ত করে ২০১১ সালের ৩১ অক্টোবর পাবনার আদালতে অভিযোগপত্র দেয়া হয়।

মামলাটি পরে দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য ২০১৬ সালে রাজশাহী দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়। দীর্ঘ ৯ বছর পর সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে এ রায় ঘোষণা করা হলো।

রায় ঘোষণার পর সাজাপ্রাপ্ত উপস্থিত আসামিদের রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। আসামিদের পক্ষে আইনজীবী আবু বক্কর ও রাইসুল ইসলাম মামলাটি পরিচালনা করেন। তারা এ রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানিয়েছেন। তবে রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।