প্রথম প্রান্তিকে গ্রামীণফোনের রাজস্ব ৩ হাজার ৪৮৬ কোটি টাকা

news-details
অর্থনীতি

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) গ্রামীণফোনের রাজস্ব এসেছে ৩ হাজার ৪৮৬ কোটি ২২ লাখ ৯৯ হাজার টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৩ হাজার ১২৪ কোটি ৩৫ লাখ ৮৬ হাজার টাকা। আলোচ্য সময়ে কর পরিশোধের পর কোম্পানির মুনাফা হয়েছে ৮৯২ কোটি ৬১ লাখ ৪১ হাজার টাকা। গেল বছরের একই সময়ে মুনাফা ছিল ৬৩৯ কোটি ৪৩ লাখ ৪৫ হাজার টাকা। প্রথম প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৬ টাকা ৬১ পয়সা। ২০১৮ সালের প্রথম প্রান্তিকে ইপিএস ছিল ৪ টাকা ৭৪ পয়সা। আলোচ্য সময়ে কোম্পানির অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে গ্রামীণফোন লিমিটেডের ২২তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) ও বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) গতকাল রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। এজিএমে কোম্পানির শেয়ারহোল্ডাররা ২০১৮ সালের জন্য ১৫৫ শতাংশ চূড়ান্ত নগদ লভ্যাংশ ও ১২৫ শতাংশ অন্তর্বর্তীকালীন নগদ লভ্যাংশের অনুমোদন দিয়েছেন। এতে ২০১৮ সালে অনুমোদিত  মোট লভ্যাংশের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে পরিশোধিত মূলধনের (শেয়ারপ্রতি মূল্য ২৮ টাকা) ২৮০ শতাংশ।

গ্রামীণফোনের পরিচালনা পর্ষদের প্রধান পিটার বি. ফারবার্গ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল ফোলিসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এজিএমে উপস্থিত ছিলেন। সভা পরিচালনা করেন কোম্পানি সেক্রেটারি এসএম ইমদাদুল হক। 

সভায় বক্তব্য দানকালে পিটার বি. ফারবার্গ বলেন, গ্রামীণফোন মনে করে, প্রতিযোগিতাসংক্রান্ত যেকোনো নীতিমালা বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা আইন ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রচলিত পদ্ধতি অনুযায়ী হওয়া উচিত। এতে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট খাতের সার্বিক উন্নয়ন ও প্রবৃদ্ধি গতিশীল হবে। এসএমপি নীতিমালা এমন হওয়া উচিত নয়, যার কারণে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের প্রবৃদ্ধি, উদ্ভাবন ও বিনিয়োগের সুযোগ কমে যায়।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।