সিইসির অতৃপ্ত আত্মাকে ধারণ করলেন ঢাবির ভিসি: রিজভী

news-details
রাজনীতি

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।। 

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনেও মধ্যরাতে ভোট দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার অতৃপ্ত আত্মাকে ডাকসু নির্বাচনে নিজের দেহে ধারণ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভিসি অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান।

ডাকসুর নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালযে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারের ‘মিডনাইট ভোটের’ প্রেসিক্রিপশন অনুযায়ী ঢাবি ভিসি ডাকসু নির্বাচন করেছেন এমন অভিযোগ করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, গতকাল ডাকসুর ইতিহাসের নজিরবিহীন ঘটনা ঘটাল। মিডনাইট ভোটের সরকারের ফতোয়া শুনে ঢাবির ভিসি ‘ভূতের বেগার’ খেটে বিশ্ববিদ্যালয় সুমহান ঐতিহ্যকে ধুলোয় লুটিয়ে দিলেন। সরকার যেহেতু বিরোধীদের এক ইঞ্চি জায়গা ছাড়তেও নারাজ, তাই আজ্ঞাবাহী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডাকসু নির্বাচন করলেন প্রহসন ও সন্ত্রাসী বার্তা বরণে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার-সিইসির অতৃপ্ত আত্মাকে নিজের দেহে ধারণ করলেন ভিসি আখতার।

ডাকসু নির্বাচনে ফলে ‘অস্বাভাবিক ইঞ্জিনিয়ারিং’ হয়েছে, এমন মন্তব্য করে বিএনপির এ নেতা বলেন, ডাকসু নির্বাচনের ফল ‘অস্বাভাবিক’। এতে অনেক অসামঞ্জস্য রয়েছে। ছাত্র সংসদের যে নির্বাচনগুলো হয়, তাতে দেখা যায় ভিপি থেকে সদস্য পর্যন্ত একটা ফিক্সড প্যানেল ভোট থাকে। এই প্যানেল ভোটটা সবাই পায়।কিন্তু ১১ মার্চের ডাকসু ভোটের ফলে দেখা যাচ্ছে যে, ছাত্রলীগের যিনি ভিপি-জিএস এবং কোটা সংস্কার আন্দোলনের যিনি ভিপি-জিএস এর মধ্যে প্যানেল ভোটের অনেক পার্থক্য।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কারিগরি অনুযায়ী ঢাবি ভিসি ফল ঘোষণা করতে পারেন এমন সন্দেহ করে রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কোনো কারিগরি হয়েছে বা সেই কারিগরির কোনো ব্লু প্রিন্ট ফুলার রোডে ভাইস চ্যান্সেলরের বাসভবনে হয়েছে কিনা এটি বলা যাবে দু-একদিন পর। আগে সব ফল নিয়ে আমরা বিশ্লেষণ করে দেখি। তবে এখন পর্যন্ত মনে হয়েছে এটি অস্বাভাবিকই বটে।

কবি আল মাহমুদের কবিতার লাইন উদ্ধৃত করে বিএনপির এ নেতা বলেন, প্রখ্যাত কবি আল মাহমুদ তার এক কবিতায় লিখেছিলেন- ‘জানতে সাধ জাগে’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কি ডাকাতদের গ্রাম?’ তিনি কেন এ কবিতা লিখেছিলেন আমি জানি না। তিনি বলেন, এই বরেণ্য কবির ওই কবিতার লাইনটি প্রমাণ করল গতকাল ছাত্রলীগ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভোট ডাকাতির প্রতিবাদ হয়েছে এমন মন্তব্য করে রিজভী বলেন, ছাত্রলীগ নামধারী বর্গি ও মগদের অভয়ারণ্যের মধ্যেও উদ্দীপ্ত প্রাণের সাহসী তরুণরা ভোট ডাকাতির বিরুদ্ধে রক্তরঞ্জিত হয়েও প্রতিবাদ করেছে অমিতবিক্রমে। আমি মনে করি, এই প্রতিবাদের অংশ নিয়ে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, কোটা সংস্কার আন্দোলনের ছাত্ররা ও বাম ছাত্র সংগঠনগুলো প্রমাণ করেছে তারা আলোর পথের যাত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. সাহিদা রফিক, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, আবদুল আউয়াল খান, শামসুজ্জামান সুরুজ, কাজী রফিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত অনিয়মের অভিযোগ তুলে ছাত্রলীগ ছাড়া সব প্যানেলের ভোট বর্জনের ডাকসু নির্বাচনে দুটি পদ ছাড়া সব পদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্রলীগ সমর্থিত প্যানেল। ভিপি পদে জয়ী হয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্লাটফর্ম সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা নুরুল হক নুর। আর সমাজসেবা সম্পাদক পদেও জয়ী হয়েছেন কোটা আন্দোলনের আরেক নেতা। বাদবাকি ২০টি পদে জয়ী হয়েছে ছাত্রলীগ। ছাত্রী হলগুলো ছাড়াও অন্য হলে ছাত্রলীগ নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।


 

You can share this post on
Facebook

0 Comments

If you want to comment please Login. If you are not registered then please Register First