ব্রেকিং নিউজ

ভারতের করোনা হাসপাতালে আগুন, ৮ রোগীর মৃত্যু

news-details
আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

‘বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট’ থেকে আগুন লেগে ভারতের গুজরাটে একটি হাসপাতালে ৮ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালটি করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় নিয়োজিত রয়েছে।

গতকাল বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ভয়াবহ আগুন লাগার এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সম্প্রচার মাধ্যম এনডিটিভি তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আহমেদাবাদের নাভরাংপুর এলাকার শ্রেই নামে হাসপাতালটিতে আগুন লাগার খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর ৮টি ফায়ার ইঞ্জিন ও ১০টি অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। সেখানে তিন নারীসহ ৮ জন নিহত হয়েছেন। তারা হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন।

আগুন লাগার সময় ৫০ শয্যার হাসপাতালটিতে ৪৫ জনের মতো রোগী ভর্তি ছিলেন। যে ৮ রোগীর মৃত্যু হয়েছে তারা বাদে বাকিদের উদ্ধার করে সর্দার বল্লবভাই প্যাটেল ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স অ্যান্ড রিসার্চ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এনডিটিভি আরও জানিয়েছে, আজ বৃহস্পতিবার সকালেও ঘটনাস্থলে থাকা দমকল কর্মীদের উদ্ধার তৎপরতা চালাতে দেখা গেছে। হাসপাতালটির বাইরে রোগীদের উদ্বিগ্ন স্বজনরা ভিড় করে আছেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা প্রথমিকভাবে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছে বলে ধারণা করছে।

নিহতদের ২ লাখ ও আহতদের ৫০ হাজার রুপি করে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে এনডিটিভি। প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে এ অর্থ প্রদান করা হবে। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও এক টুইট বার্তায় এর নিশ্চয়তা দেন।

শ্রেই হাসপাতালে আগুনের ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনাও জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি টুইটে লিখেছেন- ‘আহমেদাবাদের হাসপাতালে আগুনের ঘটনায় কষ্ট লাগছে। নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। আহতরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন। পরিস্থিতি নিয়ে গুজরাটের মুথ্যমন্ত্রী ও আহমেদাবাদের মেয়রের সঙ্গে কথা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তা করা হবে।’

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্যাশবোর্ড অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ভারতে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ১৯ লাখ ৬৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে, মৃত্যু হয়েছে ৪০ হাজার ৬৯৯ জনের।

 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।