ব্রেকিং নিউজ

হোসেনি দালান হামলা: ৫ বছরেও শেষ হয়নি মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ

news-details
জাতীয়

আমাদের প্রতিবেদক :

পুরান ঢাকার হোসেনি দালানে ২০১৫ সালে শিয়া সম্প্রদায়ের তাজিয়া মিছিলে বোমা হামলা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় নব্য জেএমবির ১৩ জঙ্গির জড়িত থাকার সত্যতা পায় ডিবি।

এদের মধ্যে তিনজন ডিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। বর্তমানে মামলাটি ঢাকার সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন আছে। এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মধ্যে মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন মাত্র ১২ জন। মামলায় ছয় জঙ্গি কারাগারে আটক আছেন। বাকি চার জঙ্গি জামিনে বেরিয়ে গেছেন। চারজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

আদালত সূত্র জানায়, হোসেনি দালানে জঙ্গি হামলা মামলায় পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালত ২০১৭ সালের ৩১ মে ১০ জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

এ বিষয়ে সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত সরকারি কৌঁসুলি মো. গোলাম ছরোয়ার খান গণমাধ্যমকে বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে আদালত বন্ধ থাকায় মামলার বিচারকাজও বন্ধ ছিল। এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মধ্যে মাত্র ১২ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। দ্রুত সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করতে তারা তৎপর রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৩ অক্টোবর গভীর রাতে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতির সময় ইমামবাড়ায় বোমা হামলা হয়। এতে দুজন নিহত ও শতাধিক আহত হন। পরে সেখান থেকে অবিস্ফোরিত দুটি বোমা (ইম্প্রোভাইসড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস—আইইডি) উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবি তাদের শক্তির জানান দিতে শিয়া সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় জমায়েতকে লক্ষ্যবস্তু হিসেবে বেছে নিয়েছিল, যাতে দেশের মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।