ব্রেকিং নিউজ

মৃতদেহ নিয়ে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্স, নিহত ৬

news-details
দেশজুড়ে

বরিশাল ব্যুরো

বরিশালের উজিরপুরে একটি অ্যাম্বুলেন্স ও কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে আটিপাড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

উজিরপুর থানার ওসি জিয়াউল আহসান এতথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, ঢাকায় মারা যাওয়া এক শিশুর মৃতদেহ নিয়ে ঝালকাঠির একটি পরিবার গ্রামের বাড়ি যাচ্ছিল। বরিশাল থেকে ছেড়ে যাওয়া একটি কাভার্ডভ্যানের সঙ্গে আটিপাড়ায় অ্যাম্বুলেন্সটির মুখোমুখি হয়।

ওসি জিয়াউল আহসান জানান, নিহতদের মধ্যে চারজন একই পরিবারের সদস্য। তারা হলেন- নবজাতক তামান্নার বাবা কামরুল ইসলাম আরিফ (৪০), ফুফু সুরাইয়া আক্তার শিউলি, চাচা কাইউম হোসেন তারেক (৩০), দাদী কোহিনুর বেগম এবং অ্যাম্বুলেন্স চালক কুমিল্লার মো. আলমগীর। নিহত অন্য একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

তবে তিনি আরিফের শ্যালক বলে জানিয়েছেন আরিফের চাচাত ভাই আব্বাস উদ্দিন। তিনি আরও জানান, নিহত আরিফ ঢাকায় একটি গার্মেন্টেসে চাকরি করতেন। তার বোন সুরাইয়া আক্তার শিউলি সেনাবাহিনীতে কর্মরত ছিলেন।

জানা গেছে, দুর্ঘটনায় নিহত আরিফের স্ত্রী দুইদিন আগে ঢাকার উত্তরার একটি হাসপাতালে সন্তান প্রসব করেন। পরে নবজাতক (তামান্না) অসুস্থ হয়ে মৃৃত্যুবরণ করে। মৃতদেহ নিয়ে পরিবারের সদস্যরা বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢাকা থেকে অ্যাম্বুলেন্সে ঝালকাঠির বাউকাঠী গ্রামের উদ্দেশে রওনা হন।

দুর্ঘটনাস্থল আটিপাড়ার বাসিন্দা সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের শিক্ষার্থী মো. জুনায়েদ বলেন, একটি যাত্রীবাহী বাসকে অতিক্রম করতে চেয়েছিল অ্যাম্বুলেন্সটি (ঢাকা মেট্রো ছ-৭১১৭১৩)। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা মেসার্স গাজী রাইস মিল নামক একটি প্রতিষ্ঠানের কাভার্ডভ্যানের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। একই সময়ে পিছনে থাকা মায়া ট্রাভেলস নামক যাত্রীবাহী বাস (খুলনা মেট্রো ব-১১০-১৭১) কাভার্ডভ্যানটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে অ্যাম্বুলেন্সটি ছিটকে সড়কের পাশে গাছের ওপর আছড়ে পড়ে।

জুনায়েদ জানান, তিনিসহ অন্যান্যরা দৌড়ে অ্যাম্বুলেন্সের কাছে গিয়ে ছয়জনের মৃতদেহ দেখতে পান। দুর্ঘটনায় বাসের কমপক্ষে ১০ জন যাত্রী আহত হয়েছেন।

হাইওয়ে পুলিশের গৌরনদী থানার উপ-পরিদর্শক অশোক কুমার বলেন, দুর্ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে অ্যাম্বুলেন্স কেটে ছয়জনের লাশ উদ্ধার করেন। লাশগুলো বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। উদ্ধারকাজ চলার কারণেপ্রায় একঘণ্টা ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে যানবহন চলাচল বন্ধ ছিল। ঘাতক কাভার্ডভ্যান ও মায়া পরিবহন নামক বাসটি আটক করা হলেও চালকরা পালিয়ে গেছেন।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।