ব্রেকিং নিউজ

বেড়েছে ডিমের দাম, পেঁয়াজও চড়া

news-details
অর্থনীতি

আমাদের প্রতিবেদক :

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজধানীর বাজারে কমছে না পেঁয়াজ, আদা, রসুনের দাম। এর সঙ্গে বেড়েছে ডিম, বেগুন, শশার দাম। তবে কমেছে মুরগির দাম।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর শনিআখড়া, যাত্রাবাড়ি, স্বামীবাগ, হাতিরপুল বাজার ঘুরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়। ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারে প্রতিকেজি চায়না আদা ২৩০-২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ১৫ দিন আগেও প্রতিকেজি আদা ১৫০-১৬০ টাকায় বিক্রি হয়। 

কমেনি পিঁয়াজের দাম। প্রতিকেজি দেশি পিঁয়াজ ৯০-১০০ টাকায় ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৭৫-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

কাঁচাবাজারে গিয়ে দেখা গেছে, বেগুন, শশা, কাঁকরোল, কচুরমুখির দাম বেড়েছে। প্রতিকেজি শশা আগের সপ্তাহের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে ১০০ থেকে ১২০ টাকায়, কাঁকরোল ১৫-২০ টাকা বেড়ে ৬০-৬৫ টাকায়, কচুরমুখি ১০-১৫ টাকা বেড়ে ৫৫-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

তবে বেশ কিছু পণ্যের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ১৭০-১৮০ টাকায়, টমেটো ১১০ থেকে ১২০ টাকায়, করলা ৬৫-৮০ টাকায়, উস্তা ৭০-৭৫ টাকায়, পটল ৫০-৫৫ টাকায়, বরবটি ৭৫-৮০ টাকায়, ধুন্দুল ৫৫-৬০ টাকায়, ঝিঙ্গা ৫৫-৬০ টাকায়, বেগুন ৭৫-৮০ টাকায়,  ফুলকপি ছোট ৩৫-৪০ টাকায়, বাঁধাকপি ৪০-৪৫ টাকায়, কচুরলতি ৪০-৪৫ টাকায়, গাজর ৭৫-৮০ টাকায়, আলু ৩৫-৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া প্রতি পিস চালকুমড়া ৪০-৫০ টাকায়, লাউ ৫০-৬০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়।

হাতিরপুল কাঁচাবাজারের খুচরা ব্যবসায়ী মাসুদ রানা জানান, কয়েকটি সবজির দাম আগের চেয়ে বেড়েছে। তবে বেশির ভাগ সবজির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। শশার দাম বেড়ে যাওয়ার পেছনে বৃষ্টিকে কারণ হিসেবে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।

অপরিবর্তিত রয়েছে মাছের দাম। খুচরা বাজারে প্রতিকেজি ইলিশ আকারভেদে ৪৫০-১০০০ টাকায়, রুই আকারভেদে ২২০-৩৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।  

২ টাকা বেড়ে প্রতি হালি লাল মুরগির ডিম ৩৮-৪০ টাকায়, দেশি মুরগির ডিম ৫০-৫৫ টাকায়, হাসের ডিম ৫০-৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ডিমের দাম বাড়ার পেছনে কোনো কারণ জানাতে পারেননি ব্যবসায়ীরা।

কমেছে মুরগির দাম। প্রতিকেজি ব্রয়লার ৫-১০ টাকা কমে ১১৫-১২০ টাকায়, লেয়ার ২২০-২৩০ টাকায়, পাকিস্তানি মুরগি ২৩০-২৪০ টাকায়, গরুর মাংস ৫৫০-৫৮০ টাকায়, খাসির মাংস ৭৫০-৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বেড়েছে মসলার দামও। স্বামীবাগ বাজারের রাজা এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধিকারী হোসেন রাজা জানান, পাইকারি বাজারে দাম বাড়ায় প্রতিকেজি জিরায় ৫০ টাকা থেকে ১০০ টাকা এবং শুকনা মরিচের দাম কেজিতে বেড়েছে ১০-২০ টাকা।

 

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।