ব্রেকিং নিউজ

দাম কমেছে পেঁয়াজের, বাড়তি শাকসবজিতে

news-details
অর্থনীতি

আমাদের প্রতিবেদক : 

সপ্তাহের ব্যবধানে কিছুটা ওঠানামা করেছে পেঁয়াজের দাম। গত সপ্তাহের তুলনায় দেশি পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ১০ টাকা কমে ৭০ থেকে ৭৩ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে বাজারে কম থাকায় ভারতীয় পেঁয়াজ ১০ টাকা বেড়ে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

শুক্রবার (২ অক্টোবর) রাজধানীর পাইকারি বাজার কারওয়ানবাজার ঘুরে দেখা গেছে, সপ্তাহখানেক আগের বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে ভোজ্যতেল। লিটারপ্রতি ৫ টাকা বাড়তি বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম, খোলা তেল বিক্রি হচ্ছে ৬ থেকে ৭ টাকা বাড়তি দরে।

মসলার দামও স্থিতিশীল। প্রতি কেজি দারুচিনি ৩৮০ টাকা, এলাচি ২ হাজার ২০০ টাকা থেকে ২ হাজার ৮০০ টাকা এবং জিরা ২৭০ থেকে ২৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মসুর ডাল ৬৫ থেকে ৮০ টাকা, বুট ৮০ টাকা ও ছোলার ডাল ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

আগাম শীতকালীন সবজি বাজারে এলেও বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। অন্য শাকসবজির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। শীতকালীন সবজি ফুলকপি ও বাঁধাকপি সাইজভেদে ২০ থেকে ৩০ টাকায় প্রতি পিস বিক্রি হচ্ছে। নতুন শিম বাজারে আসায় কেজিপ্রতি ১৮০ থেকে ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। শসার কেজি পাইকারিতে ৭০ টাকা হলেও খুচরা বাজারে এর দাম ১০০ টাকা। কেজিপ্রতি বেগুন ৭০ থেকে ৮০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, করলা ৭০ থেকে ৮০ টাকা, কচু ৪০ টাকা, টমেটো ৯০ টাকা, পটোল ৫০ থেকে ৬০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ টাকা, গাজর ৯০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, আলু ৩৫ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

দেশি রসুন ১১০ টাকা, চায়না রসুন ৭০ থেকে ৮০ টাকা, আদা ইন্ডিয়ান ৯০ টাকা, চায়না ২৭০ টাকা ও দেশি ৩০০ টাকা পর্যন্ত কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কাঁচা মরিচের দাম কেজিপ্রতি ২০০ টাকা।

মিনিকেট চাল (প্রতি ৫০ কেজি) ২ হাজার ৭৫০ থেকে ২ হাজার ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে পাইকারি বাজারে। বিআর-২৮ ২ হাজার ৪৫০ থেকে ২ হাজার ৫০০ টাকা। খুচরা বাজারে চালের দাম ২ টাকা কমে কেজিপ্রতি আটাশ ৪৮ টাকা, মিনিকেট ৫৬ টাকা ও নাজিরশাইল ৫৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কুমিল্লা রাইস এজেন্সির মালিক মো. আবুল কাশেম বলেন, গত সপ্তাহের তুলনায় একই দামে বিক্রি হচ্ছে পাইকারি বাজারের চাল।

হালিপ্রতি ২ টাকা বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির ডিমের দাম। ডজনপ্রতি ডিমের দাম ১০৫ টাকা। দেশি ডিম ডজনপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ১৬৫ টাকায়।

মুরগির মাংসের মধ্যে ব্রয়লার ১২০ টাকা, সোনালি ২৩০ টাকা ও দেশি মুরগি ৫৫০ টাকা, খাসির মাংস ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা, গরুর মাংস ৫৬০ থেকে ৫৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে ইলিশ মাছের দাম কমেছে কেজিতে ১০০ টাকা পর্যন্ত। ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের দাম ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা, ১ কেজি থেকে ১ কেজি ১০০-২০০ গ্রাম ইলিশের দাম ৭০০ টাকা, দেড় কেজি ওজনের ইলিশ ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা, ২ কেজি ওজনের ইলিশ ১ হাজার ৬৫০ থেকে ১ হাজার ৭৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দেশি বোয়াল ৬০০ টাকা, ভারতীয় বোয়াল ৪০০ ও শিং মাছ আকারভেদে ২০০ থেকে ৪০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

ইলিশ মাছ ব্যবসায়ী সৌমিক জানান, এখন ইলিশের দাম কিছুটা কমেছে। তবে কিছুদিন পরে ইলিশ মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হলে আগামী সপ্তাহ থেকেই বাড়তি দামে বিক্রি হবে।

You can share this post on
Facebook

0 মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন ।